স্মার্টফোনের গতি বাড়ানোর উপায়

0

বর্তমানে অ্যান্ড্রয়েড হচ্ছে মোবাইলের সবচেয়ে জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেম । দিন দিন আন্ড্রয়েড ফোনের জনপ্রিয়তা বেড়েই চলছে । যাইহোক, আন্ড্রয়েড সম্পর্কে আপনারা মুটামুটি সবাই ভাল জানেন এবং অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ব্যবহার করেন । তাই, অ্যান্ড্রয়েড সম্পর্কে আপানদের কাছে নতুন করে পরিচয় দেওয়ার দরকার নেই । এখন আমরা আমাদের মূল আলোচনায় আসি ।

আজ আমি এমন কিছু পদ্ধতি আলোচনা করবো যার মাধ্যমে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের গতি বাড়াতে পারবেন । এবার চলুন আমরা দেখি কিভাবে আমরা অ্যান্ড্রয়েড ফোনের গতি বাড়াতে পারিঃ

1/ সব সময় অ্যান্ড্রয়েডের সকল অ্যাপস আপডেট করুন। এজন্য সেটিংস-এ চেক ফর সিস্টেম আপডেটে ক্লিক করে আপডেটের নোটিফিকেশন জানতে পারেন। তারপর ইনস্টল করতে পারেন। নতুন অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল করায় আগের চেয়ে অনেক নিরাপত্তার উন্নয়ন হয়।

2/ অপ্রয়োজনীয় অ্যাপসগুলো আন-ইনস্টল বা ডিসেবল করুন।

3/ মোবাইলের হোম স্ক্রিন পরিষ্কার করুন। হোম স্ক্রিন থেকে বিভিন্ন উইজেট দূর করুন। কিছু কিছু খারাপ ও ভারী লাইভ–ওয়েলপেপার গতি কমিয়ে দেয় তাই সেগুলো ব্যবহারে বিরত থাকুন ।

4/ ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট । যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড অবস্থা অতিরিক্ত খারাপ হয়ে থাকে, তাহলে আপনি ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট করে নিতে পারেন । ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট করার আগে অবশ্যই আপনার আন্ড্রয়েড এর সমস্ত ডাটা এর ব্যাকআপ নিয়ে রাখবেন । কেননা, ফ্যাক্টরি ডাটা রিসেট করলে ফোনের সমস্ত ডাটা মুছে যায় । এরপর, আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসটি সবকিছু নতুন ভাবে সেট-আপ করুন ।

5/ অ্যাপের ডাটাগুলো Clear cached করুন। এজন্য সেটিংস মেনুতে গিয়ে অ্যাপ-এ ক্লিক করে সব অ্যাপস-এ Clear cached করুন এবং Settings > Storage এ গিয়ে Cached data ক্লিয়ার করুন। এজন্য CCleaner নামে একটি অ্যাপস ইনস্টল করুন। এই অ্যাপস-এ কুলিং ফিচার যা আপনার অ্যান্ড্রয়েডের অতিরিক্ত গরম করে, সেটি অটোমেটিকালি বন্ধ করবে। সকল প্রকারের জাঙ্ক ফাইল পরিষ্কার করে আপনার অ্যান্ড্রয়েডের গতি বাড়াবে। এই অ্যাপসটিতে রয়েছে ফ্রি এন্টিভাইরাস ও মেমরি বুস্টার যা আপনার অ্যান্ড্রয়েডের র‍্যাম কে কার্যক্ষম ও ব্যাটারি ব্যাকআপ বাড়াবে।

6/ পাওয়ার সেভিংস মুড অন করে রাখুন।

7/ স্টার্ট-আপ অ্যাপস নিয়ন্ত্রণে রাখুন। আমরা অ্যান্ড্রয়েড বেশ কিছু অ্যাপস দেখি যেসব অ্যাপস অটো স্টার্ট আপ ফিচার সমৃদ্ধ । অর্থাৎ, অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস চালু হওয়ার সাথে সাথে এসব অ্যাপস স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু হয়ে যায় । যাদের র‌্যাম কম তাঁরা এ ধরনের অ্যাপস যথাসম্ভব কম ব্যবহার করার চেষ্টা করুন । কেননা, এতে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস এর গতি কমে যেতে পারে । এছাড়া, আপনি চাইলে এসব অ্যাপস এর স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্টার্ট আপ বন্ধ করতে পারেন ।

8/ গুগল ড্রাইভ বা ড্রপব্ক্স-এ আপনার ফোনের তথ্য ব্যাক-আপ রেখে Settings >Backup & reset > Factory data reset করতে পারেন। রিসেট করার আগে অবশ্যই গুগলে লগইন করতে হবে। এ ছাড়াও গতি বাড়ানোড় জন্য কাস্টম রম ইনস্টল করতে পারেন।

9/ রিডাক অ্যানিমেশন বন্ধ রাখুন।

10/ History Eraser নামের আপসটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ইনস্টল করতে পারেন। এই অ্যাপসটি কল লগ, ব্রাউজার হিস্টোরি, টেক্সট ম্যাসেজ, গুগল সার্চ হিস্টোরি, জিমেইল সার্চ হিস্টোরি, ইউটিউব সার্চ হিস্টোরি, সব ধরনের ক্যাচ ফাইল পরিষ্কার রাখে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন