আইইএলটিএস পরীক্ষার্থীদের জন্য ‘IELTS 4 steps’ নামের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করেছেন মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের সম্মান ইংরেজি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র এস এ এস রুহিন (শেখ আব্দুল সামাদ রুহিন)। অ্যাপটি নিয়ে টেকজুম ডটটিভি’র মুখোমুখি হয়েছিলেন তরুণ প্রোগ্রামার রুহিন। সাক্ষাৎকারে তিনি IELTS পরীক্ষার্থীদের জন্য অ্যাপ তৈরির পেছনের কথাগুলো তুলে ধরেন। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন সিনিয়র রিপোর্টার মাহাবুব মাসফিক।

টেকজুম ডটটিভি: আইইএলটিএস পরীক্ষার্থীদের জন্য অ্যাপ তৈরি করে আপনার কেমন লাগছে?

এস এ এস রুহিন: আইইএলটিএস পরীক্ষার্থীদের জন্য কিছু একটা করতে পেরে বেশ আনন্দ লাগছে। আর অন্যদিকে অ্যাপটি তৈরি করার পর বেশ সাড়া পেয়েছি। সবার ইতিবাচক সাড়া পেয়ে আমার আগ্রহ আরও বেড়ে যাচ্ছে।

 

টেকজুম ডটটিভি: অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপটি কি আপনার আগ্রহেই তৈরি করেছেন? নাকি এতে অন্য কারো উৎসাহ ছিল?

এস এ এস রুহিন: অ্যাপটি তৈরি করার পরিকল্পনা বেশ আগে থেকেই আমার মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছিল। চিন্তার সাথে সাথে আমার আগ্রহ বাড়তে থাকে। আর সে আগ্রহ থেকেই একদিন আমার কয়েকজন আইইএলটিএস শিক্ষকের সাথে আলাপ করি। এ বিষয়ে তাদেরও বেশ আগ্রহ ছিল। আমাকে উৎসাহ দিয়েছে। আর সে উৎসাহ নিয়েই তৈরি করে ফেলেছি ‘IELTS 4 steps’ নামের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ।

টেকজুম ডটটিভি: যারা উৎসাহ দিয়েছেন তাদের মধ্যে বিশেষ কারোর কথা বলতে চান?

এস এ এস রুহিন: বিশেষভাবে বলতে গেলে প্রথমেই আমার শিক্ষক নজিবুর রাসুল স্যারের কথা বলতে হয়। তিনি আমাকে উৎসাহ দেয়ার পাশাপাশি তথ্য দিয়ে অনেক সহায়তা করেছেন। অন্যদিকে আমার আমেরিকান টিচার রুথ ফেয়ার (Ruth fair) বিভিন্নভাবে সহায়তা করেছেন।

টেকজুম ডটটিভি: আপনি কি একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলোপার?

এস এ এস রুহিন: জি, আমি একজন প্রফেশনাল ওয়েব ডেভেলোপার। ওয়েবসাইট করা করতে বেশ সময় দিতে হয় বলেই অ্যাপ তৈরি করতে সময় দিতে পারি না। ইতিমধ্যে অনেকগুলো ওয়েবসাইট তৈরি করেছি।

টেকজুম ডটটিভি: আমরা জেনেছি আপনি মৌলভীবাজার সদরে থাকেন। সেখানে বসেও কি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করা যায়?

এস এ এস রুহিন: জি, গ্রামে বসেও ভালো মানের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করা যায়। যার প্রমান আমি নিজেই। ভালো ইন্টারনেট স্পিড থাকলে খুব সহজেই অ্যাপ তৈরি করা যায়। বরং শহর থেকে ভালো করা যায়।

টেকজুম ডটটিভি: প্রফেশনাল অ্যাপ ডেভেলোপার হওয়ার ইচ্ছা আছে কি?

এস এ এস রুহিন: জি অবশ্যই আছে। আর সে লক্ষ্যে চেষ্টা করে যাচ্ছি। আশা করি সব অ্যান্ড্রয়েড প্লাটফর্মের জন্যই অ্যাপ ডেভেলোপ করতে পারব। তবে এখনো অনেক কিছু শেখার আছে। আমি শিখতে শিখতে তা বাস্তবায়ন করতে চাই। কারন প্রযুক্তি কিছু দিন পর পর আপডেট হয়। আর সে জন্য আমাদেরও আপডেট হতে হয়।

টেকজুম ডটটিভি: অ্যাপটি তৈরি করতে আপনি কি কি সরঞ্জামাদি ব্যবহার করেছেন এবং কতদিন লেগেছে?

এস এ এস রুহিন: একটি ভালো মানের অ্যাপ তৈরি করার পরিকল্পনা নিয়েই আমি মাঠে নামি। সরঞ্জামাদি ব্যবহারের ক্ষেত্রে ডেস্কটপ এবং ল্যাপটপ দুটোই ব্যবহার করেছি। অন্যদিকে অ্যাপটি ব্যবহারে বিভিন্ন সমস্যা অনুসন্ধান করতে ট্যাব ও মোবাইল ব্যবহার করেছি। একদিকে তৈরি করতে করতে অন্যদিকে ব্যবহার করেছি। এটি করতে আমার ৫ মাস সময় লেগেছে। ভালো মানের কনটেন্ট ও ব্যবহারবিধির জন্যই এতো সময় লেগেছে।

টেকজুম ডটটিভি: আপনার গ্রামের বাড়ি এবং বর্তমানে কোথায় পড়ালেখা করছেন এবং পাশাপাশি আর কি করছেন?

এস এ এস রুহিন: আমার গ্রামের বাড়ি মৌলভীবাজার জেলার সদর জগন্নাথপুর গ্রামে। আমি বর্তমানে মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের সম্মান ইংরেজি বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্র আর বর্তমানে ফ্রিল্যান্স মার্কেট প্লেসগুলোতে ওয়েব ডেভেলোপার হিসেবে কাজ করি। পড়ালেখার পাশাপাশি সরকারি বিভিন্ন ট্রেইনিং যেমন- ফ্রিল্যান্সার টূ অনটার প্রিনিওর লার্নিং আর্নিং প্রোজেক্ট এ ট্রেইনার হিসাবে ছিলাম।

টেকজুম ডটটিভি: আপনার ভবিষৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাচ্ছি।

এস এ এস রুহিন: ভবিষৎ পরিকল্পনা হিসাবে আগামীতে আরও ভালো মানের অতি প্রয়োজনীয় অ্যাপ তৈরি করতে চাই। আমাদের দেশের অনেকেই অনেক ধরনের অ্যাপ তৈরি করেছেন। তাদের অ্যাপ ব্যবহারে যথেষ্ট তথ্য ও ব্যবহারে সমস্যা দেখা যায়। যার দরুন অনেকেই এসব নিয়ে হাসাহাসি করে। তাই আমি ভালো আইডিয়া নিয়ে সময় আর চিন্তা করে ভালো মানের অ্যাপ তৈরি করতে চাই। আর সেজন্য সরকারের নিকট একটা আবেদন থাকবে রাজধানী ঢাকার মতো ঢাকার বাইরের শহর এবং গ্রাম পর্যায়ে ইন্টারনেটের স্পিড যেন ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়া আমি উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশে যেতে চাই।

অ্যাপটির ডাউনলোড লিংক: এখানে ক্লিক করুন

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন