এশিয়ায় টেলিনরের ইন্টারনেট গ্রাহক বেড়েছে

0

এশিয়ার ছয়টি বাজারে চলতি বছরের শেষে নিজেদের ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা সম্পর্কে ধারণা দিয়েছে টেলিনর গ্রুপ। টেলিনর আশা করছে, এ বছরের শেষে এশিয়ায় তাঁদের ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা হবে সাড়ে চার কোটি। এটা গত বছরের তুলনায় ৬৪ শতাংশ বেশি।

আজ মঙ্গলবার টেলিনরের বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান গ্রামীণফোনের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা ওই পর্যায়ে পৌঁছালে এশিয়ায় টেলিনর গ্রুপের ১৬ কোটি গ্রাহকের এক-তৃতীয়াংশ ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবে।

টেলিনরের মতে, এশিয়ায় তাদের বর্তমান গ্রাহকদের মধ্যে ২০ শতাংশ নিয়মিত মোবাইল ডাটা ব্যবহার করেন। প্রতিষ্ঠানটির ‘সবার জন্য ইন্টারনেট’ কৌশলের উদ্দেশ্য হচ্ছে ফিক্সড লাইনের ঘাটতি এবং মোবাইল সেটের দাম কমার সুযোগে গুরুত্বপূর্ণ রাজস্ব ও প্রবৃদ্ধি অর্জন করা।

টেলিনর গ্রুপের নির্বাহী ভাইস প্রেসিডেন্ট (ইভিপি) এবং এশিয়া অঞ্চলের পরিচালনা প্রধান সিগভে ব্রেক্কে বলেন, ‘এশিয়ায় সবার জন্য ইন্টারনেট লক্ষ্য অর্জনে আমরা আরও একধাপ এগিয়ে গেলাম। আমাদের লক্ষ্য উচ্চাকাঙ্ক্ষী হতে পারে, কিন্তু এশিয়ার বাজারে দীর্ঘ ​মেয়াদে মোবাইল ইন্টারনেট-সেবা প্রদানে আমাদের অবস্থান দৃঢ়।’

ব্রেক্কে বলেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখলে মোবাইল ইন্টারনেট জীবন বদলে দিচ্ছে। বিশ্বের এ অঞ্চলে আরও বেশি সংখ্যক মানুষের কাছে আমাদের সেবা পৌঁছে দেওয়ার সুযোগ আছে ।

পরবর্তী প্রজন্মের তরঙ্গ
টেলিনরের এশিয়া বাজার গত দুই বছরে মোবাইল ডাটার অপ্রত্যাশিত বৃদ্ধি এবং ব্যাপক চাহিদা দেখেছে। থাইল্যান্ডে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার দ্বিগুণের কাছাকাছি, অর্থাৎ ১৮ শতাংশ থেকে বেড়ে ৩২ শতাংশে গিয়েছে । এই উচ্চ চাহিদা মেটাতে ডিটাক সম্প্রতি ব্যাংককে ৩জি নেটওয়ার্কের পরিপূরক হিসেবে ৪জি চালু করেছে।

থাইল্যান্ড, বাংলাদেশ এবং পাকিস্তানে থ্রিজি তরঙ্গ পেয়েছে টেলিনর, ভারতে পেয়েছে ১৮০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে অতিরিক্ত তরঙ্গ এবং বিশ্বের সর্বশেষ সম্ভাবনাময় বাজার মিয়ানমারে ৯০০ মেগাহার্টজ এবং ২.১ গিগাহার্টজ ব্যান্ডে তরঙ্গ পেয়েছে।

২০১৪ সালের শুরুর দিকে বাংলাদেশে গ্রামীণফোন টেলিনরের ইতিহাসে সবচেয়ে দ্রুতগতিতে দেশজুড়ে থ্রিজি সেবা বিস্তার করে। এপ্রিলে পাকিস্তানে টেলিনর থ্রিজি সেবা চালুর জন্য লাইসেন্স পায় এবং দেশজুড়ে মোবাইল ইন্টারনেট গ্রাহকদের সংখ্যা বৃদ্ধি পায়। ভারতে সম্প্রতি ইউনিনর ফিচার এবং স্মার্টফোনে ইন্টারনেট-সেবা চালু করেছে এবং আশা করছে এ বছরই উভয় সেবাতে গ্রাহক সংখ্যা দ্বিগুণ হবে। আগামী মাসে মিয়ানমারে টেলিনর টুজি এবং থ্রিজি সেবা চালু করতে যাচ্ছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।

টেলিনর এর ইভিপি এবং হেড অব গ্রুপ স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড ডিজিটাল হেনরিক ক্লাউসেন বলেন, ‘এসব সেবার মাধ্যমে প্রত্যেকের জীবন বদলে যাচ্ছে যা সমাজের জন্য কাজে আসছে।’

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন