নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// সম্প্রতি ওয়েবসাইট হ্যাকিংয়ের শিকার হয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক টেলিকম প্রতিষ্ঠান টকটক। এর ফলে প্রায় ৪০ লাখ গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে হ্যাকাররা যা চলতি বছরে প্রতিষ্ঠানটিকে তৃতীয়বারের মতো হ্যাকিংয়ের তিক্ত অভিজ্ঞতার মুখোমুখি করল।

বিবিসি জানিয়েছে, প্রতিদিন গড়ে প্রায় দশ লাখ ম্যালওয়্যারযুক্ত প্রোগ্রাম তৈরি করা হচ্ছে যার মাধ্যমে হ্যাকিং পরিচালনা করা হয়। তবে এটিই একমাত্র উপায় নয়, গ্রাহককে ইমেইল মেসেজের মাধ্যমেও ফাঁদে ফেলছেন অনেক হ্যাকার। এ ছাড়া বহুল ব্যবহারিত সফটওয়্যারগুলোতে ত্রুটি শনাক্ত করে সবচেয়ে ভয়ংকর হ্যাকিংগুলো পরিচালনা করা হয়।

হ্যাকিংজনিত সমস্যা থেকে বাঁচতে প্রতিষ্ঠানগুলো গড়ে ৭৫টি করে পৃথক সাইবার ডিফেন্স সিস্টেম ব্যবহার করে। এত বেশি সংখ্যক সিস্টেম ব্যবহার করার ফলে নিরাপত্তা কাজে নিয়োজিত কর্মচারীরা একের পর এক অ্যালার্ট পেতে থাকেন যার অনেকটাই তাদের অজানা থাকে বলে জানিয়েছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষক ড্যারেন থমসন। অনেকসময় নিরাপত্তাকর্মীরা যে সকল সমস্যা সমাধানে কাজ করেন আদতে তা প্রতিষ্ঠানের জন্য বড় কোনো হুমকিই নয়।

এ ছাড়া ম্যালওয়ারপূর্ণ ইমেইল ওপেন করে ফেললে অনেক সময় কিছুই করার থাকে না।

অনেক সময় আবার প্রতিষ্ঠানের ভেতরের লোকেরাই হ্যাকিং পরিচালনা করে বলে সর্বোচ্চ নিরাপত্তাব্যবস্থা নিলেও তা কোনো কাজে আসেনা।

টকটকের ক্ষেত্রে প্রথমে সার্ভারে ডিস্ট্রিবিউটেড ডেনিয়াল অফ সার্ভিস (ডিডিওএস) আক্রমণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

এভাবে আক্রমণ করে অনেক সময়ই নিরাপত্তা কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিদের নজর অন্যদিকে সরিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ডেটা চুরি করে হ্যাকাররা-এমনটি জানিয়েছেন আর্বার নেটওয়ার্কসের অন্যতম প্রধান প্রকৌশলী রোনাল্ড রবিনস।

একই পদ্ধতি অনুসরণ করে ডিডিওএস আক্রমণের পর হ্যাকিং দলটির অন্য একটি অংশ কাস্টমার ডেটাবেস থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করে।

টকটক ছাড়াও যুক্তরাজ্যের সেলিব্রেটি শেফ জেমি অলিভারের ওয়েবসাইটও পরপর তিনবার হ্যাকিংয়ের কবলে পড়েছে।

ব্যবসার কাজে ওয়েব ব্যবহার করছে এমন প্রতিষ্ঠানের জন্য হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে তথ্য ফাঁসের ঘটনা মারাত্মক সমস্যা সৃষ্টি করে বলে জানিয়েছে বিবিসি। বর্তমানে অনেক প্রতিষ্ঠান আগে থেকেই হ্যাকিংয়ের শিকার হবে এমন ধারণা করে বলে সাইটটিতে জানানো হয়।

অনেক প্রতিষ্ঠান আবার নিজেদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরখ করার জন্য পেশাদার হ্যাকারদের দিয়ে নিজেদের সাইটেই আক্রমণ চালায় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন