হাওয়াই দ্বীপে ১৮ তলার সমান টেলিস্কোপ! আদালতের নিষেধাজ্ঞা

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// চন্দ্র-তারা-নক্ষত্র দেখার জন্যে এ পৃথিবীতে সবচেয়ে সুন্দর স্থানটি হলো হাওয়াই দ্বীপ। এর মৌনা কিয়া পাহাড় থেকে আকাশটাকে সবচেয়ে পরিষ্কার দেখা যায়। তাই এ পাহাড়ে ডজন খানেক জ্যোর্তিবিজ্ঞানী ভীত গেড়েছেন। এই পাহাড়েই পৃথিবীর বৃহত্তম টেলিস্কোপ স্থাপনের আয়োজন শুরু হয়। ১.৪ বিলিয়ন ডলারের সেই টেলিস্কোপের উচ্চতা ১৮ তলা ভবনের সমান! কিন্তু সম্প্রতি স্টেট সুপ্রিম কোর্ট এই টেলিস্কোপ বসানোর প্রজেক্টে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। আদালতের এ নিষেধাজ্ঞার পেছনে রয়েছে কারণ। ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি এবং ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার বিজ্ঞানীরা যৌথভাবে কাজটি করার পরিকল্পনা নিয়েছিলেন।

মৌনা কিয়া হাওয়াই দ্বীপের প্রাকৃতিক পরিবেশের অন্যতম উপাদান। এ পাহাড়ে এত বিশাল স্থাপনা নির্মিত হলে ভারসাম্য নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এটা হেভি ইন্ডস্ট্রিয়াল প্রজেক্ট হবে। কাজেই প্রচুর মানুষ এবং কাজের চাপ বেড়ে যাবে।

এখানকার মানুষের স্বাস্থ্যের জন্যেও হুমকি হতে পারে এই প্রজেক্ট। এর আগেও ২০০৫ সালে আদালত এক বিবৃতিতে জানায়, এ প্রজেক্টটি নির্মিত হলে এখানকার পরিবেশ আগামী ৩০ বছরের জন্যে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আঠারো তলার সমান একটা টেলিস্কোপ এবং একে ঘিরে যে ভবন উঠবে, তা হবে এই দ্বীপের সবচেয়ে বড় স্থাপনা। এদিকে টেলিস্কোপ বোর্ডের চেয়ারম্যান হেনরি ইয়াং এক বিবৃতিতে জানান, প্রজেক্টটি রাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত মেনে নেবে। এর বিরুদ্ধে যাবে না।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন