গবেষকেরা জানিয়েছেন, ২০২০ সাল নাগাদ ৯০০ কোটি মোবাইল ফোন সংযোগ থাকবে, যার মধ্যে স্মার্টফোন হবে ৬০০ কোটি।

এর মধ্যে দুই–তৃতীয়াংশ স্মার্টফোন ব্যবহৃত হবে উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলোতে। মোবাইল অপারেটরদের সংস্থা জিএসএমএর সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জিএসএমএর গবেষণা শাখা জিএসএমএ ইন্টেলিজেন্স সম্প্রতি ‘স্মার্টফোন ফোরকাস্টস অ্যান্ড অ্যাজাম্পশন, ২০০৭-২০২০’ নামের এক গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছে।

জিএসএমএর ধারণা, বর্তমানে ২০০ কোটি স্মার্টফোন সংযোগ ব্যবহৃত হচ্ছে। বর্তমানে স্মার্টফোনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার হার বিবেচনায় শীর্ষ তিনটি দেশ হচ্ছে চীন, যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিল।
জিএসএমএর প্রধান পরিকল্পনা কর্মকর্তা হুনমি ইয়াং বলেন, ‘বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা ও লাখো মানুষের দক্ষতা বাড়াতে বৈশ্বিক উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে জোয়ার এনেছে স্মার্টফোন। গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, আগামী ছয় বছরে মোবাইল–শিল্পের প্রবৃদ্ধিতে স্মার্টফোনই চালিকাশক্তি হবে।

আগামী দেড় বছরেই শুধু ১০০ কোটি নতুন স্মার্টফোন ব্যবহারকারী বাড়বে বলে পূর্বাভাস দেন ইয়াং।

গবেষকেরা দাবি করেছেন, ২০১১ সালেই স্মার্টফোন সংযোগ অধিগ্রহণের দিক থেকে উন্নত দেশগুলোকে পেছনে ফেলেছে উন্নয়নশীল দেশগুলো। এখন প্রতি তিনটি স্মার্টফোনের দুটি ব্যবহার হচ্ছে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে। ২০২০ সাল নাগাদ স্মার্টফোন ব্যবহারের দিক থেকে উন্নয়নশীল দেশগুলোই প্রতিনিধিত্ব করবে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন