দৃষ্টিহীনদের পথ দেখাবে স্মার্টছড়ি

0

অন্ধদের পড়া লেখার জন্য ব্রেইল পদ্ধতির আবিষ্কার হয় ১৮২৪ সালে। এই পদ্ধতি আবিষ্কার করেন লুইস ব্রেইল।

এবার দিল্লির একদল গবেষক দৃষ্টিহীনদের জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে এ স্মার্টছড়ি তৈরি করেছেন। দৃষ্টিহীন ব্যক্তিদের চলতে সাহায্য করবে এ স্মার্টছড়ি। চলার পথে ছড়িটি কম্পন সৃষ্টির মাধ্যমে দিক-নির্দেশনা দেবে।

এর ভেতরের সেন্সরগুলো ব্যবহারকারীর হাঁটাচলার ধরন ও হাঁটার রাস্তার অবস্থা পরিমাপ করে সে অনুযায়ী হাঁটার চাপ প্রতি পদক্ষেপে নতুন নতুন জায়গায় ছড়িয়ে দিয়ে কব্জি বা যে কোনো অংশে অতিরিক্ত চাপ প্রতিহত করবে। এছাড়াও লাঠিটির ভেতর নিজস্ব চালিকাশক্তি রয়েছে, যার মাধ্যমে এটি পরের পদক্ষেপ নেয়ার আগেই সঠিক অবস্থানে চলে যাবে নিজ থেকেই। এবং এটি হাঁটার সময় হাতের কব্জির ওপর চাপে সৃষ্ট ব্যথাও কমাবে।

ভারতের তৈরি এ স্মার্টছড়িটির মূল্য ৫০ ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যা ৩ হাজার টাকা। স্মার্ট ছড়িটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্রসমূহে বসবাসকারী দৃষ্টিহীনদের জন্য আশার সঞ্চার করবে। ভারতী কারলা নামে দিল্লির এক দৃষ্টিহীন শিক্ষিকা এ স্মার্টছড়ি ব্যবহার করেন।

তিনি জানান, এই ছড়ি তার জীবনকে পাল্টে দিয়েছে। একইভাবে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই ছড়িটি অনান্য দৃষ্টিহীনদের জীবনেও আশার আলো জ্বালবে। এ স্মার্টছড়ি যে অন্ধ মানুষের কাছে অন্ধের যষ্টির মতই কাজ করবে এমনটাই জানিয়েছেন দিল্লির ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির অধ্যাপক বালাকৃষ্ণ।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন