তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে সমাজিক উন্নয়নের স্বীকৃতি হিসেবে ‘উইটসা’ পদক পাচ্ছে বাংলাদেশ।  পাবলিক সেক্টর এক্সিলেন্স ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ এই ‘এক্সিলেন্স ইন আইসিটি’ পুরস্কার পাচ্ছে। বুধবার মেক্সিকোর গুয়াদালাজারা শহরে তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক বিশ্ব সম্মেলনে (ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন আইসিটি) অনুষ্ঠানিকভাবে এই পুরস্কার দেয়া হবে।

সম্মাননা গ্রহণের জন্য সোমবার নিউ ইয়র্ক থেকে মেক্সিকোর উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ছেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি জানিয়েছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এবং সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শ অনুযায়ী যে কাজ চলছে তারই আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি হিসেবে এই সম্মাননা লাভ করছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ সময় ১ অক্টোবর ভোর ৬টায় প্রধানমন্ত্রীর ছেলে ও তার তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের সঙ্গে এই সম্মাননা গ্রহণ করবেন তিনি।

উইটসা এর বাংলাদেশী প্রতিনিধি সংগঠন বাংলাদেশ কম্পউটার সমিতি (বিসিএস) থেকে চার সদস্যের প্রতিনিধ দল ওই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ইতিমধ্যেই ঢাকা ছেড়েছেন বলে বিসিএস সূত্রে জানা গেছে। এই দলে রয়েছেন, বিসিএস সহ সভাপতি মুজিবুর রহমান স্বপন, সাবেক সহসভাপতি সবুর খান, সেক্রেটারি জেনারেল মুনেম হোসেন রানা ও সদস্য কোম্পানি কম্পউটার সোর্স পরিচালক এইউ খান জুয়েল।

প্রসঙ্গত, ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস অ্যালায়েন্স (ডব্লিউআইটিএসএ) প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর ‘গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড’-এর আয়োজন করে থাকে। অ্যালায়েন্সের (ডব্লিউআইটিএসএ) ৮০টি সদস্য রাষ্ট্রের সমন্বয়ে গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি তথ্য-প্রযুক্তি খাতে উদ্ভাবনী কাজের জন্য এ পুরস্কার দিয়ে থাকে।  পাবলিক সেক্টর এক্সিলেন্স, প্রাইভেট সেক্টর এক্সিলেন্স, ডিজিটাল অপরচ্যুনিটি ও সাসটেইনেবল গ্রোথ ক্যাটাগরিতে এ পুরস্কার দেয়া হয়।

এর আগে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারে আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন অ্যাওয়ার্ড জিতেছে বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ই-গভর্নমেন্টে তথ্য প্রযুক্তির প্রয়োগের দক্ষতায় এই আন্তর্জাতিক সম্মান অর্জন করে। সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় গত ১০ জুন এই অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

ওয়ার্ল্ড সামিট অন দ্য ইনফরমেশন সোসাইটির ভোট পর্ব বাংলাদেশ থেকে এ বছর পাঁচটি প্রকল্প-উদ্যোগ ডব্লিউএসআইএস প্রকল্প পুরস্কারের জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে মনোনীত হয়েছিল। ওয়ার্ল্ড সামিট অন দ্য ইনফরমেশন সোসাইটি (ডব্লিউএসআইএস) প্রকল্প পুরস্কার তথ্য-প্রযুক্তি ক্ষেত্রে উদ্যোগ ও বাস্তবায়নের বড় ধরনের স্বীকৃতি হিসেবে বিবেচিত হয়। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির মাধ্যমে মানুষের জীবনে পরিবর্তন আনার জন্য ওয়ার্ল্ড সামিট ফর ইনফরমেশন সোসাইটি কাজ করে যাচ্ছে। এর পাশাপাশি বিশ্বব্যাপী সৃজনশীল উদ্ভাবনগুলো ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি।

ডব্লিউএসআইএসির এই প্রতিযোগিতায় সরকারি, বেসরকারি, সাধারণ নাগরিক, আন্তর্জাতিক সংস্থা ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রকল্প জমা দেয়ার সুযোগ থাকে। ওয়ার্ল্ড সামিট অন দ্য ইনফরমেশন সোসাইটির অংশীদাররা এতে অংশ নেয়ার সুযোগ পান। দেশে প্রযুক্তি ক্ষেত্রে এই অগ্রগতির অংশ হিসেবে এবার গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছে বাংলাদেশ।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন