তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, টেকজুম ডটটিভি// একজন অ্যামেচার রেডিও অপারেটর রেডিও ট্রান্সমিটার ও রিসিভারের মাধ্যমে দেশে-বিদেশের অন্য একজন রেডিও অপারেটরের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। অ্যামেচার রেডিও অপারেটদের হ্যাম বলা হয়। দূর্যোকালীন সময়ে রেডিও যোগাযোগের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রের অঘোষিত দূতের কাজ করেন হ্যামরা।

দেশে দুই শতাধিক হ্যাম রয়েছেন। সারা বিশ্বে হ্যামদের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে। বাংলাদেশে অ্যামেচার রেডিও অপারেটরদের নিয়ে একটি সংগঠন রয়েছে। নাম বাংলাদেশ অ্যামেচার রেডিও লীগ (বিএআরএল)। এই সংগঠনের ব্যানারে গতকাল রাজধানীর টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (টিসিএ) কার্যালয়ে একটি কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় ২০১৩ সালের অ্যামেচার রেডিও সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ও কলসাইন প্রাপ্ত নতুন হ্যাম এবং ২০১৭ সালের পরীক্ষায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়।

কর্মশালার বিষয় ছিল এইচএফ ও ভিএইচএফ রেডিও যোগাযোগ। মূলত এইচএফ ও ভিএইচএফ বেতারের সাহায্যে একজন অ্যামেচার অপারেটর দূরবর্তী হ্যাম রেডিও স্টেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। আপদকালীন সময় এই ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম হয়ে দাঁড়ায়।

কর্মশালার শুরুতেই বাংলাদেশ অ্যামেচার রেডিও লীগের সংগঠক অনুপ কুমার জানান, নতুন হ্যামদের যথাযথ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে রেডিও যোগাযোগে পারদর্শী গড়ে তোলা হবে। এজন্য একটি বিস্তারিত কর্মসূচী হাতে নেয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে তিনটি ধাপে অনুষ্ঠান চলবে।

প্রথম ধাপে নতুন শিক্ষার্থীদের নিয়ে ঢাকায় এলাকা ভিত্তিক দল গঠন করা হবে। প্রতিটি দলে থাকবেন একজন কলসাইন প্রাপ্ত অ্যামেচার রেডিও অপারেটর। যিনি আগামী এক থেকে দেড়মাসের মধ্যে নতুনদের হাতে কলমে হ্যাম রেডিও অপারেশন ও অ্যান্টেনা তৈরি শেখাবেন।

দ্বিতীয় ধাপে প্রশিক্ষণার্থীদের নিয়ে ফিল্ড টেস্টের আয়োজন করা হবে। যেখানে বিভিন্ন দল একে অপরের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করবে। প্রতিযোগিতায় অ্যামেচার রেডিও স্টেশনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা যোগাযোগে কতটা পারঙ্গম হলেন তার প্রমাণ দেবেন।

সর্বশেষ ধাপে হ্যাম রেডিও সংক্রান্ত নিয়মনীতি জানানো হবে। এই ধাপেই বিজয়ীদলকে পুরস্কার দেয়া হবে। এছাড়াও এই কর্মসূর্চীতে অংশ নেয়া সকলকে সনদ দেবে বাংলাদেশ অ্যামেচার রেডিও লীগ।

বিএআরএল-এর সাধারণ সম্পাদক রুবায়াত হাসান রাতুল কর্মশালায় এইচএফ ও ভিএইচ এফ রেডিওর মাধ্যমে সিগন্যাল প্রেরণ ও গ্রহণ সংক্রান্ত বিষয় হাতে কলমে শেখান। তিনি এইচএফ কমিউনিকেশনের নানা দিক তুলে ধরেন। কীভাবে একজন হ্যাম রেডিও অপারেটর পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের হ্যাম রেডিও অপারেটরের সঙ্গে কলসাইনের মাধ্যমে কথোপকথোনে অংশ নেবেন সে সম্পর্কে দিক-নির্দেশনা দেন।

কর্মশালায় হ্যাম রেডিও অ্যান্টেনার তৈরির বিভিন্ন বিষয় আলোচনা করেন তারিফ আর শান্ত। তিনি ইয়াগি সংযোজন ও এটি কীভাবে কাজ করে তা অংশগ্রহণকারীদের মাঝে তুলে ধরেন।

কর্মশালা শুরুর আগে টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন কার্যালয়ের ছাদে এইচএফ/ভিএইচএফ অ্যান্টেনা স্থাপন করা হয়।

কর্মশালার শেষে ওয়াকিটকি রেডিও সেটের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারীরা একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করে। আর এর মাধ্যমেই অ্যামেচার রেডিও সেটে হাতেখড়ি হলো।

কর্মশালায় রেডিও যোগাযোগ নিয়ে কথা বলেন, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ও দেশের প্রথম ন্যানো স্যাটেলাইট ব্র্যাক অন্বেষার গ্রাউন্ড স্টেশন ইনচার্জ ড. মো. হাসানুজ্জামান সাগর, বাংলাদেশ ব্রডকাস্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তৌফিক রহমান, বাংলাদেশ অ্যামেচার রেডিও লীগের নির্বাহী সদস্য সৈয়দ শামসুল আলম, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলম, লিয়াকত আলী মোল্লাসহ সংগঠনটির নেতা-কর্মীরা।

টেকজুম ডটটিভি/১৭সেপ্টেম্বর/রোহান

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন