মোবাইলেই সমাধান জাতীয় ১০ সমস্যা

0

দুর্নীতি, সড়ক ও নৌ-দুর্ঘটনা এবং মাতৃস্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন নাগরিক সমস্যার ‘উদ্ভাবনী’ মোবাইল অ্যাপস উপস্থাপন করে বিজয়ী হয়েছে ১০টি দল। প্রথম জাতীয় মোবইল হ্যাকাথনে টানা ৩৬ ঘণ্টার কর্শালায় অংশ নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন গ্রাভিটি বিডি, মবিও ম্যান, ইউআইইউ অ্যাম্বাসেডর, ট্রিলিয়ন পিক্সেল, ব্রেইন স্টেশন-২৩ ডব্লিউটিএস, টিম ত্রিমাত্রিক, বাডিস ড্রিম, কসমোটর ও ব্রাক ইউ হেন্ক।

রোববার সন্ধ্যায় রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতা শেখে বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হয়।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির পরিচালক মিনা মাসুদ, এমসিসি লিমিটেড সিইও আবির আশরাফ, আইডিইবি প্রেসিডেন্ট একেএমএ হামিদ, ইএটিএল সিইও মবিন খান, কিউবি সিইও ফয়সাল হায়দার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সেরা ১০ সমাচার
গ্রাভিটি বিডি: জাতীয় হ্যাকাথনে ১০ বিভাগের মধ্যে যানজটের তথ্য নিয়ে তৈরি অ্যাপস গ্রাভিটি বিডি বিচারকেরদের রায়ে বিজয়ী হয়েছে। স্মার্টফোন থেকে যানজটের তথ্য, সড়কে গাড়ির চাপ, নির্মাণাধীন রাস্তার তথ্য, দুর্ঘটনা, বিকল্প রাস্তার তথ্যসহ গন্তব্যে যাওয়র সহজ রাস্তা বাতলে দেবে। বিজয়ী দল গ্রাভিটি বিডি, আহসান উল্ল্যাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নিয়ে গঠিত এই দলের সদস্যরা হলেন, আদনান আহমেদ খান (দলনেতা), মো. আরমান আহমেদ, বাপ্পী দত্ত, রাশেদুল হাসান ও বিশ্বজিৎ পন্ডে।

মবিও ম্যান: সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক অ্যাপ বানিয়ে জাতীয় মোবাইল হ্যাকাথনে বিজয়ী হয়েছে মবিও ম্যান। পেশাদার অ্যাম নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের এই দলটির সদস্যরা হলেন ফিদা মুনতাসির (দলনেতা), ফারহাদ আন নাঈম, আবিদ হাসান শাওন, তানভীর আহমেদ এবং শরিফুল ইসলাম। এই অ্যাপের মাধ্যমে অ্যাক্সিডেন্ট রিপোর্টিং পদ্ধতি অন্তর্ভূক্ত রয়েছে।

ইউআইইউ অ্যাম্বাসেডর: সাইক্লোন সেন্টার ব্যবস্থাপনা নিয়ে অ্যাপ বানিয়ে বিজয়ী হয়েছে ইউনাইটেড ইন্টার ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির দল ইউআইইউ অ্যাম্বাসেডর। দলের সদস্যরা হলেন, খালেদ সাইফুল্লাহ (দলনেতা) পার্থ প্রতীম সূত্রধর। নাজমুল আহসান, মাহমুদুর রশীদ ও তাসফিকুল বারী। তাদের তৈরি অ্যাপটি মুঠোফোনে সাইক্লোনের পূর্বাভাস, সাইক্লোন সেন্টারের অবস্থান, ত্রাণ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে দুর্গত এলাকার মানুষকে সহায়তা করবে।

ট্রিলিয়ন পিক্সেল: ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের দল ট্রিলিয়ন পিক্সেল বিজয়ী হয়েছে দুর্নীতি দমন নিয়ে অ্যাপ বানিয়ে। এই দলে রয়েছেন সাকিব হাসান (দলনেতা), শিহাবুল হাসান সানি, তাসিন আলম তামিম এবং মারুফুর রহমান। এই অ্যাপের মাধ্যমে দেশের নাগরিকরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে পারবেন। এতে থাকছে দুর্নীতির আলামত হিসেবে অডিও প্রমাণের ব্যবস্থা যা সবার সামনে উপস্থাপন করা যাবে।

ব্রেইন স্টেশন-২৩ ডব্লিউটিএস:
নৌযানের ফিটনেস চেক করার পাশাপাশি যাত্রীরা নিজেদের অবস্থা সরাসরি সম্প্রচার করতে সক্ষম এমন একটি অ্যাপস ডেভেলপ করে হ্যাকাথনে বিজয়ী হয়েছে পেশাদার ডেভেলপার দল ব্রেইন স্টেশন-২৩ ডব্লিউটিএস। এই দলের সদস্যরা হলেন- আব্দুল্লাহ ফয়সাল (দলনেতা), অতীশ কুমার দীপংকর, মুাহাম্মদ জাকারিয়া, মুহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম এবং কাজী ফায়সাল আরেফীন অভি।

টিম ত্রিমাত্রিক: পরীক্ষার প্রশ্ন প্রত্র ফাঁস রোধে তৈরি অ্যাপ্লিকেশন ’দি গার্ড’ তৈরি করে বিজয়ী হয়েছে ড্যাফডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের দল ত্রিমাত্রিক। এই দলের সদস্যরা হলেন, এমএম হোসাইন দীপ (দলনেতা), মেহেদী হাসান বাপ্পী, ফুয়াদ সাইয়েদ, খান ইয়াসির আরাফাত এবং মীর আশরাফ আলী রনক। তাদের তৈরি অ্যাপটি পরীক্ষা পরিদর্শক হিসেবে বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্র পর্যবেক্ষণ করবে।

বাডিস ড্রিম: এই আসরে বিজয়ী হয়েছে ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন অ্যান্ড টেকনলোজি (ইউআইটিএস) দলের সদস্যদের তৈরি যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ নিয়ে তৈরি অ্যাপস। এই অ্যাপ নির্মাতা দলের সদস্যরা হলেন- এনামুল হাসান (দলনেতা), মাহমুদুল হাসান, বনি আমিন রেজওয়ান, শেখ তকিরুল আলম এবং ফয়সাল আহমেদ।

কসমোটার: চট্টগ্রামের পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির দল কসমোটার বিজয়ী হয়েছে স্যানিটেশন নিয়ে তৈরি অ্যাপ বানিয়ে। এই দলের সদস্যরা হলেন- শাহাদাত হোসেন রিয়াদ, নাজমুল সাকিব বিন কালাম, মোহাম্মদ সাইদুল, ইমরান হোসেন এবং পরাগ দাস।

ব্রাক ইউ হেন্ক: দশ সমস্যার সমাধানের মধ্যে অসংক্রামক রোগ নির্ণয়ের অপর আরেকটি অ্যাপস বিজয়ী হয়েছে। এই অ্যাপটি তৈরি করেছে ব্রাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্রাক ইউ হেন্ক দলের সদস্যরা। দলনেতা নাহিদ কামালের নেতৃত্বে এই দলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সাইয়েদ ইরফান আরেফিন, শাহনেওয়াজ আহমেদ, তৌফিক জয় এবং তাসনিয়া আশরাফী হেনা। এই অ্যাপটি রোগীদের পূর্বের এবং বর্তমান মেডিকেল রিপোর্ট মিলিয়ে একপি প্রোফাইল তৈরি করতে সাহায্য করে।

যৌন হয়রানি বিষয়ক সমস্যার সমাধান দিয়ে বিজয়ী হয়েছে রূপম আইটি লিমিটেড এর আরআইটিএল ডাক।

জাতীয় মোবাইল হ্যাকাথসে অংশ নেয় এক হাজার ৬১৪ প্রোগ্রামার। ২৪৪টি টিমে বিভক্ত হয়ে ১০টি ক্যাটাগরিতে নাগরিক বান্ধব মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করছেন তারা। পাঁচ সদস্যের কোডার ও ডিজাইনারের সমন্বয়ে একটি টিম গঠন করা হয়। প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় ৫৪টি পেশাদার কোম্পানি।

এদের মধ্যে যানজট নিয়ে ৩০টি দল, প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে ২৯টি দল, সড়ক নিরাপত্তা নিয়ে ২৬টি দল, যৌন হয়রানি নিয়ে ২৩টি দল, যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে ২৩টি দল, সাইক্লোন সেন্টার ব্যবস্থাপনা নিয়ে ২২টি দল, দূর্নীতি নিয়ে ২১টি দল, সেনিটেশন নিয়ে ১৯টি দল, নৌপথের নিরাপত্তা নিয়ে ১৯টি এবং অসংক্রামক রোগ নিয়ে ১৮টি দল নিজস্ব আইডিয়ায় উপস্থাপন করে অভিনব সব মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন। উপস্থাপিত অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে বিচারকদের রায়ে বিজয়ী ১০ অ্যাপ্লিকেশন সরকারি ভাবে বাজারজাত করা হবে বলে জানাগেছে।

এক্ষেত্রে বেটার স্টোরিজ এশিয়া অ্যাপগুলো বিপননে সহায়তা করবে। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ প্রত্যেক বিজয়ী দলকে দুই লাখ টাকা এবং এদের মধ্যে শীর্ষ দলকে ইনোভেশন ফান্ড থেকে ২০ লাখ টাকা দেয়া হবে। এছাড়া প্রযুক্তি ভিত্তিক অনলাইন পোর্টাল হাইফাই পাবলিক প্রচারণার দায়িত্ব পালন করবে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন