রাজধানীতে দুইদিন ব্যাপী গ্রামীণফোন স্টার্টআপ এক্সপো অনুষ্ঠিত

0

গ্রামীণফোন এক্সেলারেটর এবং স্টার্টআপ ঢাকার আয়োজনে জিপিহাউসে হয়ে গোলো ‘স্টার্টআপ এক্সপো’র চতুর্থ ব্যাচের উদ্ভাবনী ধারণা প্রদর্শন ও মূল্যায়ন প্রতিযোগিতা। এতে অংশ নেয় জিপি এক্সেলারেটরের ৫টি দল – আমার উদ্যোগ, মার্স, অভিযাত্রিক, ফুডটং ও অল্টার ইয়ুথ। প্রতিটি উদ্যোগই নজর কেড়েছে দর্শক ও বিনিয়োগকারীদের।

গত ২৫ ও ২৬ অক্টোবর প্রায় এক হাজার দর্শকের সামনে উদ্যোগের কারিগরি ও ব্যাবহারিক নানা দিক তুলে ধনের নবীন উদ্যোক্তারা। নজর কাড়েন উপস্থিত বিনিয়োগকারীদের।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয়দিন গ্রামীণফোন এর সিইও, মাইকেলফলি স্টার্টআপদের উৎসাহ জোগাতে যোগদান করেন।

গ্রামীণফোন এক্সেলারেটর প্রোগ্রামকে এতো দূর আসতে দেখে তিনি উচ্ছাস প্রকাশ করে বলেন, ‘গ্রামীণফোন সবসময় চেষ্টা করে সমাজে বিদ্যমান বৈষম্যগুলোর ঊর্ধ্বে উঠে সমাজের জন্য ভাল কিছু করতে। যেভাবে এখানের বিভিন্ন বয়সের মানুষ দেশের জন্য কিছু করার চেষ্টা করছে তা দেখে খুবই ভাল লাগল। এই স্টার্টআপগুলোকে গ্রামীণফোনে সর্বাত্মকভাবে সহায়তা করবে।’

গ্রামীণফোনে হেড অব ট্রান্সফরমেশন কাজী মাহবুব হোসাইন বলেন, ‘প্রতিবার এইসব উদ্যোক্তাদের আগ্রহ, সৃজনশীলতা এবং কর্মশক্তি দেখে আমি বিস্মিত হই। ডিসেম্বরে আমরা আমাদের আসন্ন ডে মোডে এর মাধ্যমে তাদের সাফল্য এবং উন্নতি সকলের সামনে তুলে ধরতে চাই।’

বাংলাদেশের সেরা টেকভিত্তিক স্টার্টআপদের খুঁজে বের করতে গ্রামীণফোন ও স্টার্টআপ ঢাকা ২০১৫ সালের অক্টোবরে যৌথ উদ্যোগে এক্সেলারেটর প্রোগ্রামটি শুরু করে। এরপর থেকে এই প্রোগ্রাম টির আর কখন ঘুরে তাকাতে হয়নি। এখন পর্যন্ত বেশ কিছু উল্লেখযোগ্য স্টার্টআপ এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে উঠে আস্তে পেরেছে। যথেষ্ট বাছাই প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে যাবার পর টিমগুলি একটি চার মাস ব্যাপী প্রশিক্ষনে যোগদান করার সুযোগ পায় । এই প্রশিক্ষন তাদের একটি সফল এবং স্বাবলম্বী উদ্যোগতা হিসাবে গড়ে তোলে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন