পেমেন্ট সুইচের মাধমে এক অ্যাকাউন্ট থেকে সব ব্যাংকে লেনদেনের সুযোগ

0

আন্তঃব্যাংক লেনদেন আরো প্রসার করতে ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ (এনপিএসবি) এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যাংকিংয়ে ফান্ড ট্রান্সফার সুবিধা চালু করা হয়েছে। ফলে এখন থেকে এক ব্যাংকের গ্রাহক ঘরে বসেই অন্য ব্যাংকের গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে অর্থ লেনদেন করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ-এনপিএসবির মাধ্যমে আন্তঃব্যাংক ইন্টারনেট ব্যাংকিং ফান্ড ট্রান্সফারের উদ্বোধন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে ডেপুটি গভর্নর এস.এম. মনিরুজ্জামান আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

ডেপুটি গভর্নর এস এম মনিরুজ্জামান বলেন, গতানুগতিক কার্যক্রম থেকে বেরিয়ে এসে ডিজিটাল ব্যাংকিংয়ের দিকে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এই কার্যক্রম চালুর ফলে লেনদেন সহজ হবে। এখন গ্রাহক ঘরে বসেই যেকোনো ব্যাংকের লেনদেন করতে পারবেন। এতে করে ক্যাশ লেস লেনদেন বাড়বে। তবে এটি যেহেতু ইন্টারনেটভিত্তিক লেনদেন তাই এর কিছু ঝুঁকি থাকবে। হ্যাকাররা কখন কিভাবে আক্রমণ করবে তা বলা কঠিন। তাই এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সতর্ক থাকতে হবে।

এ সময় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে জানানো হয়, বর্তমানে দেশে পেমেন্ট কার্ড ব্যবসা করছে, এমন ৫৩টি ব্যাংকের মধ্যে এনবিএসবির সদস্য ৫১টি ব্যাংক। এর মধ্যে ছয়টি ব্যাংক ইন্টারনেট ব্যাংকিং ফান্ড ট্রান্সফারের কাজ শুরু করেছে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইন্টারনেট ব্যাংকিং ফান্ড ট্রান্সফার সুবিধা চালুর ফলে গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট থেকে অ্যাকাউন্ট, অ্যাকাউন্ট থেকে ডেবিট/ক্রেডিট কার্ডে এবং ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড হতে অ্যাকাউন্টে অর্থ স্থানান্তর করা যাবে। তাছাড়া, এর মাধ্যমে ক্রেডিট কার্ডের বিল প্রদান, ডিপিএসের মাসিক কিস্তি জমা, ঋণের মাসিক কিস্তি জমা, ইন্সুরেন্স প্রিমিয়াম প্রদান, বিজনেস টু বিজনেস অর্থ প্রদান ইত্যাদি সেবা গ্রহণ আরও সহজ, সাশ্রয়ী ও দ্রুততর হবে।

এছাড়াও ই-কমার্স বা ঘরে বসে অনলাইনে পণ্য ও সেবা ক্রয়-বিক্রয়ের সুযোগ অনেকগুন বাড়বে। যা ই-কমার্সভিত্তিক নতুন নতুন উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে এ খাতের ব্যাপক প্রসারে সহায়ক হবে।

অনুষ্ঠানে ব্যাংকগুলোর শীর্ষ নির্বাহীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দেশে ব্যাংক গ্রাহকের সংখ্যা বাড়লেও সে অনুপাতে বাড়ছে না এটিএম বুথ। বর্তমানে আন্তঃব্যাংক লেনদেন ফি-ও অনেক বেশি। এটিকে সহনীয় পর্যায়ে আনার ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছেও দাবি রাখেন তারা।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন