লেদারটেক বাংলাদেশের পঞ্চম আসর শুরু বৃহস্পতিবার

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// বাংলাদেশের চামড়া ও চামড়াজাত শিল্পের আধুনিকায়ন এবং উন্নয়নে আগামী বৃহস্পতিবার    থেকে শুরু হচ্ছে চামড়া শিল্পের সবচেয়ে বড়  আয়োজন  ‘লেদারটেক বাংলাদেশ ২০১৭’।

রবিবার বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে আয়োজক সংস্থা আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন্স এসব তথ্য জানায়।

সংবাদ সম্মেলনে  আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক টিপু সুলতান ভুইয়া জানান,  রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) পঞ্চমবারের মত আয়োজিত তিনদিনব্যাপী এ ট্রেড শো’তে বাংলাদেশের চামড়া, চামড়াজাত পণ্য এবং ফুটওয়্যার শিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় মেশিনারি, কম্পোনেন্ট, ক্যামিকেল এবং এক্সেসরিজ সংশ্লিষ্ট আন্তর্জাতিক ও স্থানীয় প্রযুক্তি তুলে ধরা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আয়োজক প্রতিষ্ঠানের পরিচালক নন্দ গোপাল কে বলেন,  “দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম রপ্তানি আয়যোগ্য পণ্য ‘চামড়া শিল্পের’ প্রতি সরকারের গুরুত্ব বিবেচনা করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ‘চামড়া ও চামড়াজাত পণ্যকে ২০১৭ সেরা পণ্য’  হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন।”

তিনি বলেন, “২০২১ সালের মধ্যে ৫ বিলিয়ন ডলারের রপ্তানীর লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে চায় চামড়া খাত। এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে চামড়া খাতের পরিসর যেমন বাড়ছে; তেমনি বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার বাড়ছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রকমারি প্রযুক্তি, সমস্যা সমাধানের বিভিন্ন উপায় এবং বহুমুখী পণ্যের সমাহারের মাধ্যমে চামড়া খাতের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায়  ও পরিসর বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে ‘লেদারটেক বাংলাদেশ ২০১৭’।”

লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার অ্যান্ড এক্সপোর্টাস অফ বাংলাদেশের (এলএফএমইএব) সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, “সরকার ২০২১ সালের মধ্যে বিভিন্ন শিল্পখাত থেকে ৬০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানী আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে যেখান চামড়া ও চামড়াজাত শিল্পের অবদান হবে ৫ বিলিয়ন ডলার। এই পরিসংখ্যান বিবেচনায় দেশের অর্থনীতিতে চামড়া ও চামড়াজাত খাতের অবদান অনস্বীকার্য। এই খাতকে এগিয়ে নিয়ে আস্ক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন্স প্রাইভেট লিমিটেড ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছে।”

আয়োজকরা জানান, চামড়াখাতের শীর্ষ ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ ‘লেদারটেক বাংলাদেশ ২০১৭’ এর উদ্বোধন করবেন।

এছাড়া এবারের আন্তর্জাতিক এ প্রদর্শনীতে বিশ্বের ১৫টি দেশের ২৫০টি প্রতিষ্ঠান ট্যানিং লেদার,  ম্যানুফ্যাকচারিং ফুটওয়্যার, চামড়াজাত পণ্যসহ সংশ্লিষ্ট প্রযুক্তি উপস্থাপন করবে।  অংশগ্রহণকারী প্যাভিলিয়নগুলোর একটি বড় অংশজুড়ে থাকবে ভারত ও চীনের বিভিন্ন কোম্পানি। আগের আসরগুলোর ধারাবাহিকতায় এবারের প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ, ভারত , চীন, কোরিয়া, তুরস্ক, মিশর, ভিয়েতনাম, যুক্তরাজ্য, শ্রীলঙ্কা, ইতালি, জার্মানি, সিঙ্গাপুর, জাপান, তাইওয়ান এবং হংকং এর মোট ২৫০ টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করবে।

আয়োজনের প্রধান পৃষ্ঠপোষকতা করছে লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারারস অ্যান্ড এক্সপোর্টারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ। আর কৌশলগত অংশীদার সেন্টার অব এক্সিল্যান্স ফর লেদার স্কিল বাংলাদেশ লিমিটেড।

এছাড়া অন্যান্য পৃষ্ঠপোষকদের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ ফিনিশড লেদার, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার এক্সপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ টেনারস অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ পাদুকা প্রস্তুতকারক সমিতি, কাউন্সিল ফর লেদার এক্সপোর্টস এবং ইন্ডিয়ান ফুটসওয়্যার কম্পোনেন্টস ম্যানুফ্যাকচারারস অ্যাসোসিয়েশন।

প্রতিদিন সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত বিনামূল্যে সবার জন্য প্রদর্শনীটি ১৮ নভেম্বর  পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন সেন্টার ফর এক্সিলেন্স ফর লেদার স্কিল বাংলাদেশ লিমিটেডের (কোয়েলের) প্রকল্প পরিচালক কাজী রওশান আরা প্রমুখ।

টেকজুমটিভি/এমআইজে

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন