বিশ বছর পূর্তিতে ভবিষ্যৎ প্রযুক্তি প্রদর্শন করল এরিকসন

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি//  ভবিষ্যত প্রযুক্তি প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে বিশ বছর পূর্তি উদযাপন করলো এরিকসন বাংলাদেশ।  অনুষ্ঠানে  ভবিষ্যতে   কৃষি, স্বাস্থ্য এবং আধুনিক জীবনযাপনে বাংলাদেশ কেমন প্রযুক্তিময় হবে তারই একটা চিত্র  দেখালেন প্রতিষ্ঠানটি।

বাংলাদেশে এরিকসনের দীর্ঘযাত্রার ২০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সম্প্রতি রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত এই টেকনোলজিক্যাল প্রদর্শনীর নানা দিক বর্ণনা করেন এরিকসন-এর বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া ও শ্রীলংকার প্রধান টড এসটন।

তিনি বলেন, ‘আমরা পুনর্ব্যক্ত করেছি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই খাতে আমাদের প্রতিশ্রুতির। আমাদের ধারণা, উদ্ভাবনী তথা বৈপ্লবিক প্রযুক্তিতে আমূল পরিবর্তন এনেছে দৈনন্দিন জীবনে, ব্যবসায় এবং সমাজে বাস্তব জীবনের নানাবিধ সমস্যা সমাধানের পথ উন্মোচন করে। দীর্ঘ বিশ বছর ধরে এরিকসন বাংলাদেশে প্রযুক্তিখাতে নানামুখী অবদান রেখে চলেছে। দেশটির দূরবার্তা শিল্পে যেটা জন্ম দিয়েছে এক ডিজিটাল বিপ্লবের।’

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ‘এই ভূ-খন্ডে উন্মোচিত হল এক ইতিহাস- বিশ বছরের অংশীদারিত্ব, প্রতিশ্রুতি এবং সম্মিলিত প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনের। সেই উনিশ’ সাতানব্বই থেকে শুরু করে এরিকসন এক উদ্ভাবনী প্রভাবকের ভূমিকা পালন করে চলেছে। সূচনা করেছে অনেকগুলো মাইলফলক। প্রথমত যার মধ্যে রয়েছে প্রথম জিএসএম নেটওয়ার্ক, প্রথমবারের মত থ্রি জি এবং ফোর জি প্রযুক্তি। নেটওয়ার্ক ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পে অন্যতম সেরা দুরালাপনী সেবাপ্রদায়ক হিসেবে উন্নীত হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে এরিকসন ফাইভ জি প্রযুক্তির পথযাত্রী। আইওটি এবং ক্লাউডের মত তথ্য প্রযুক্তিগত সমাধানের পথ সৃষ্টি করেছে। বিশ বছর পূর্তিতে এই হল সর্বোত্তম আয়োজন যেখান থেকে এরিকসনের চিন্তাগুলো ব্যক্ত করা হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে প্রযুক্তিগুলো প্রদর্শিত হয়েছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল রোবোটিক আর্ম, স্মার্ট পার্কিং এবং স্মার্ট ওয়াটার গ্রীড।

রোবোটিক আর্ম :  এই প্রযুক্তির মাধ্যমে রোবট সনাক্ত করতে পারবে হাতের ইশারা।আসন্ন ৫-জি প্রযুক্তি প্রতিশ্রুতি দেয় একটি তারবিহীন পৃথিবীর যেখানে উক্তরোবটিক নিযন্ত্রণের উপযোগী যোগাযোগের  নিশ্চয়তা থাকবে।

স্মার্ট পার্কিং :  স্মার্ট পার্কিং সেন্সর আগাম বার্তা দিবে একটি নিদিষ্ট পার্কিংয়ের জায়গাতে গাড়ি পার্ক করার মত যথেষ্ট ফাঁকা জায়গা আছে কিনা। এটা কমিয়ে আনবে যানজট এবং কার্বন নিঃসরণ মাত্রা।

স্মার্ট ওয়াটার গ্রীড :  ইন্টারনেট অব থিংস হল একটি অত্যাশ্চর্য আবিষ্কার, যেখানে শুধু কম্পিউটার নয় বাস্তব জীবনের সবকিছুই যুক্ত হবে ইন্টারনেটের মাধ্যমে। তেমনই একটি প্রকল্প হল স্মার্ট ওয়াটার গ্রীড। যে পদ্ধতিতে একটি সেন্সর এবং একচুয়েটর এর সমন্নিত ব্যবস্থা আপনাকে জানিয়ে দিবে স্টোরেজ ট্যাংকের পানির বিশুদ্ধতা এবং প্রবাহ সম্পর্কে। পাইপের কোথাও ছিদ্র থাকলে তাও জানা যাবে এই সেন্সরের মাধ্যমে। নদীর পানির উচ্চতা এবং বন্যার সম্ভাবনার সর্ম্পকেও অবহিত করবে এই প্রযুক্তি।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডিশ রাষ্ট্রদূত চারলোটা সিল্টারসহ এরিকসন বাংলাদেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

টেকজুমটিভি/এমআইজে

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন