মোবাইল এর জন্য সেরা ৫ ভিডিও এডিটর

0

কয়েকবছর আগেও কল্পনা করা যেত না যে মোবাইলেও হাই-ডেফিনিশন ভিডিও বা মুভি এডিট করা যাবে। তবে সবকিছু সম্ভব হয়েছে স্মার্টফোন আসার মাধ্যমে এবং সেই স্মার্টফোনের প্রতিনিয়ত উন্নয়নের কারনে। কিন্তু কম্পিউটার এর তুলনায় মোবাইলের সব ভিডিও এডিটর তেমন কিছুই না। কারন ভিডিও এডিট করা খুব ভারী কাজ এর জন্য জন্য দরকার ভালো স্পেসিফিকেশনের ডিভাইস। আর যা মোবাইলে দেওয়া এখনো সম্ভব হয় নি। কিন্তু সল্প পরিসরে এডিট করার জন্য অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে বেশ কিছু ভালো এডিটর রয়েছে।

চলুন দেখে নেই অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল এর জন্য সেরা ভিডিও এডিটর সম্পর্কে

কাইনমাস্টার
লিস্টের ১ নম্বরে থাকা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল এর জন্য সেরা ভিডিও এডিটরটি হল কাইনমাস্টার (KineMaster – Pro Video Editor)। এটি খুব শক্তিশালী একটি ভিডিও এডিটিং অ্যাপ। প্লেস্টোরে এর রেটিং ৪.৫। অ্যাপটি মোবাইল ইউটিউবার দের কাছে খুবই জনপ্রিয়। উপরে উল্লেখিত ভিডিও এডিটিং অ্যাপগুলোর বেসিক এডিটিং টুলসের সবগুলোই আছে এতে। তবে যে জন্য এটি সবচেয়ে সেরা তা হল এর লেয়ার অ্যাড করার সক্ষমতা। আপনি এই অ্যাপটির সাহায্যে মাল্টিপল ভিডিও, চিত্র, ইফেক্ট, ওভারলে, স্টিকার, টেক্সট এবং হ্যান্ডরাইটিং লেয়ার তৈরি করতে পারবেন যা আগে কেবল মাত্র কম্পিউটার দিয়েই করা যেত। এছাড়া এতে আরো আছে অডিও ফিল্টার, ভিডিও ফিল্টার, ট্রানজিশন, ক্রোমা কী (গ্রীন স্ক্রীন এর জন্য) এবং আর অনেক কিছু। বেসিক টুলসের মধ্যে আর আছে ব্লার করা, ভিডিও স্পীড চেঞ্জ করা ইত্যাদি। একটি মোবাইল ভিডিও এডিটর হিসেবে এর চেয়ে বেশি আর কিই বা দেওয়া যাবে! প্লেস্টোর থেকে অ্যাপটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করে আপনি কিছু সময়ের জন্য এর ট্রায়াল ভার্শন ব্যবহার করতে পারবেন। তবে সমসময়ের জন্য ভিডিও এডিটরটি পেতে আপনাকে প্রতি মাসে $4.99 দিয়ে সদস্যতা বা সাবস্ক্রিপশন নিতে হবে।

পাওয়ার ডিরেক্টর
অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের জন্য ২য় সেরা ভিডিও এডিটর হলো পাওয়ার ডিরেক্টর (PowerDirector Video Editor App)। প্লেস্টোরে শক্তিশালী এই ভিডিও এডিটিং অ্যাপটির রেটিং ৪.৫। অ্যাপটির কম্পিউটার এডিশন ভিডিও এডিটরদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। এতে আছে অসংখ্য ফিচার্স যেমন: বিভিন্ন বেসিক ভিডিও এডিটিং টুলস, ইফেক্ট, ট্রানজিশন ইত্যাদি। আছে ভিডিও ট্রিম করা, কাট করা, টেক্সট বা লেখা যুক্ত করা, মিউজিক অ্যাড করা, ভিডিওতে স্লোমোশন ফিল্টার দেওয়া, ভিডিও রোটেট করা ইত্যাদি সুবিধা। এতে আপনি ভিডিও কোলাজ করতে পারবেন এবং ছবি ও ভিডিওর সাহায্যে স্লাইডশো ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। অ্যাপটি আপনি প্লেস্টোরে ফ্রীতেই পাবেন তবে কিছু অতিরিক্ত সুবিধার জন্য কিছু ফিল্টার বা সুবিধা আপনাকে কিনে নিতে হবে।

ফিলমোরা গো
লিস্টের ৩য় স্থানে রয়েছে ফিলমোরা গো (FilmoraGo – Free Video Editor)। এটি ওয়ান্ডারশেয়ার কর্তৃক নির্মিত একটি অ্যাপ। প্লেস্টোরে এই ভিডিও এডিটিং অ্যাপটির রেটিং ৪.৩। এর মাধ্যমে আপনি ট্রিমিং, রোটেটিং, কাটিং, টেক্সট বা মিউজিক অ্যাডিং ইত্যাদি বেসিক সব এডিটিং করতে পারবেন। সাথে আপনি ফিলমোরা গো এর সাহায্যে ইনস্টাগ্রাম এর জন্য ১:১ ও ইউটিউব এর জন্য ১৬:৯ মাপের ভিডিও তৈরি এবং এডিট করতে পারবেন। এছাড়া ভিডিও রিভার্স করতে পারবেন, ভিডিওর স্পীড কন্ট্রোল করতে পারবেন (স্লো বা ফাস্ট), ট্র্যানজিশন, ওভারলে, বিভিন্ন ফিল্টার, টাইটেল, ইলিমেন্টস ইত্যাদি যুক্ত করতে পারবেন। আছে বিভিন্ন মোশন গ্রাফিক্স যেগুলোর মাধ্যমে ভিডিওতে দিতে পারবেন প্রোফেশনালদের ছোঁয়া। প্লেস্টোরে ফ্রীতেই পাবেন তবে কিছু শক্তিশালী ফিল্টার এবং সুবিধা আপনাকে কিনে নিতে হবে।

অ্যাকশন ডিরেক্টর
অ্যাকশন ডিরেক্টর কম্পিউটারের জন্য দারুন জনপ্রিয় একটি ভিডিও এডিটিং অ্যাপ। আর এর মোবাইল সংস্করণও (ActionDirector Video Editor – Edit Videos Fast) আছে অ্যান্ড্রয়েড এর জন্য। প্লেস্টোরে এর রেটিং ৪.৫। ভিডিও এডিটিং এর বেসিক কাজ গুলো আপনি এর মাধ্যমে করতে পারবেন। যেমন: ভিডিও ইমপোর্ট রা, এডিট করা এবং রেন্ডার করা। এডিটিং এর ক্ষেত্রে আপনি ভিডিও ট্রিম করতে পারবেন, কাট করতে পারবেন, টেক্সট বা লেখা যুক্ত করতে পারবেন, মিউজিক অ্যাড করতে পারবেন, ভিডিওতে স্লোমোশন ফিল্টার দিতে পারবেন ইত্যাদি। এমনকি এতো 4K ভিডিও পর্যন্ত এডিট করতে পারবেন। এছাড়া আর বিভিন্ন ফাংশনের মধ্যে আছে ভিডিও রিভার্স করা, ভিডিও রিপিট করা, স্টিকার অ্যাড করা, কালার অ্যাড করা, ব্রাইটনেস – কন্ট্রাস্ট – স্যাচুরেশন অ্যাডজাস্ট করা ইত্যাদি। অ্যাপটি প্লেস্টোরে ফ্রীতে পাওয়া গেলেও এর কিছু ফিল্টার এবং সুবিধা আপনাকে কিনে নিতে হবে।

অ্যাডোবি প্রিমিয়ার ক্লিপ
লিস্টের ৫ম স্থানে থাকা ভিডিও এডিটরটি হল অ্যাডোবি প্রিমিয়ার ক্লিপ (Adobe Premiere Clip)। প্লেস্টোরে এই ভিডিও এডিটিং অ্যাপটির রেটিং ৩.৯। এর কম্পিউটার ভার্শন খুবই জনপ্রিয় একটি ভিডিও এডিটিং অ্যাপ। বলাই বাহুল্য, অ্যাডোবি প্রিমিয়ার এর কম্পিউটার ভার্সনের মত মোবাইলে অত বেশি ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে প্রয়োজনীয় সব ভিডিও এডিটিং ফিচার যেমন: ভিডিওতে স্লোমোশন ফিল্টার দেওয়া ফ্রেম বা ফ্রেম এডিট করা, ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ ক্লিপ, ট্র্যানজিশন, লাইটি অ্যাডজাস্টিং, ইফেক্ট ইত্যাদি সুবিধা পাবেন এতে। এছাড়া আপনি যদি পিসিতে বা ল্যাপটপে অ্যাডোবি প্রিমিয়ার প্রো (Adobe Premier Pro) ব্যবহার করেন তাহলে এই অ্যাপটির সাথে সিনক্রোনাইজ বা সমন্বয় করে আপনার প্রজেক্টগুলো এডিট করতে পারবেন। এর মাধ্যমে আপনি ভিডিও এডিট করার পাশাপাশি ছবি থেকে স্লাইডশো ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। প্লেস্টোর থেকে আপনি অ্যাপটি বিনামূল্যেই ডাউনলোড করতে পারবেন।

অ্যান্ড্রয়েড এর জন্য আরো কিছু ভিডিও এডিটর: ফানিমেট (Funimate), ভিডিওশো (VideoShow), ভিভাভিডিও (VivaVideo), মাগিয়েস্তো ভিডিও এডিটর ও মেকার (Magisto Video Editor & Maker), কুইক (Quik), মুভি মেকার ফিল্মমেকার (Movie Maker Filmmaker) ইত্যাদি।সুত্র:ইন্টারনেট

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন