ক্রমশ কমছে ট্যাবলেট বিক্রি এবং আইপ্যাডের বিক্রি আরো দ্রুত কমছে বলেই জানিয়েছেন বেস্ট বাইয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাবার্ট জলি। প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে কি বাজার থেকে ট্যাবলেট নামের প্রযুক্তি পণ্যটি হারিয়ে যাবে?

বিশ্লেষণ কিন্তু বলছে ভিন্ন কথা। প্রযুক্তি পরামর্শক আইডিসি’র তথ্য অনুসারে, ট্যাবলেট এখনও বেশ জনপ্রিয় এবং এর বিক্রি বাড়ছে। গত প্রান্তিকেই ট্যাবলেট বিক্রি বেড়েছে ১১ শতাংশ।

তারপরও বছর দুয়েক আগের অবস্থার সঙ্গে বর্তমানের তুলনা করলে ট্যাবলেট বাজারে মন্দা চলছে বললে ভুল হবে না। দুই বছর আগে ট্যাবলেট বিক্রি বাড়ছিল ৬০ শতাংশ হারে। যেটা বর্তমানের তুলনায় অনেক বেশিই ছিল। বার্তা সংস্থা সিএনএনের প্রতিবেদনের তথ্য অনুসারে, এ বছর প্রথম প্রান্তিকে ১৬ শতাংশ এবং দ্বিতীয় প্রান্তিকে নয় শতাংশ বিক্রি কমেছে আইপ্যাডের।

ঠিক কোন কারণে ট্যাবলেট বিক্রি কমছে সে বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, ট্যাবলেট তিনটি বড় প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হচ্ছে। আর এই প্রতিবন্ধকতাগুলোই ট্যাবলেট বাজারে ফেলছে নেতিবাচক প্রভাব।

প্রথম প্রতিবন্ধকতা হিসেবে দায়ী করা হয়েছে স্মার্টফোনকে। বড় ডিসপ্লের স্মার্টফোনগুলো প্রভাবিত করছে ট্যাবলেট বাজারকে।

এ প্রসঙ্গে জেডকে রিসার্চের প্রধান বিশ্লেষক জিউস কেরাভালা জানিয়েছেন, বর্তমানে ছোট আকৃতির ট্যাবলেটের প্রায় সমান মাপের পর্দার মোবাইল ফোন বাজারে আসা শুরু হয়েছে। কে চাইবে ওই আকৃতির একটি ফোনের সঙ্গে একটি ট্যাবলেট নিয়ে ঘুরতে?

দ্বিতীয় প্রতিবন্ধকতা হিসেবে খোদ ট্যাবলেটের সীমাবদ্ধতার দিকেই আঙুল তুলেছে সিএনএন। যেভাবে বছর দুয়েক পরপর স্মার্টফোন বদলানো হয়, সেভাবে ট্যাবলেট বদলানো সম্ভব হয় না। কারণ অধিকাংশ মানুষই ওয়্যারলেস সেবাদাতাদের সঙ্গে চুক্তি না করেই ওয়াই-ফাই-অনলি ট্যাবলেট কিনে থাকেন এবং মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপলের দিকে তাকালেও দেখা যায় তাদের নতুন আইপ্যাড এয়ার এবং চার বছর আগের আইপ্যাডের চেহারার মধ্যে খুব বেশি একটা পার্থক্য নেই। আর তাই ক্রেতারা নতুন ট্যাবলেট বাজারে আসলেও কেনেন না। এ প্রসঙ্গে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট রি/কোডকে বেস্ট বাই প্রধান নির্বাহী হাবার্ট জলি বলেছেন, “যখন একবার নির্দিষ্ট একটি প্রজন্মের ট্যাবলেট থাকে আপনার, তখন পরবর্তী প্রজন্মের ট্যাবলেট কেনা উচিত কেনা সে বিষয়টি পরিষ্কার নয়।

তৃতীয় প্রতিবন্ধকতা হিসেবে অফিস বা কর্মক্ষেত্রে ট্যাবলেট ব্যবহারের অনুপস্থিতির বিষয়টি তুলে ধরেছে সিএনএন। কর্পোরেটের প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রে পিসির ব্যবহার দেখা গেলেও, ট্যাবলেট ব্যবহার দেখা যায় না বললেই চলে। কর্পোরেট আইটি বিভাগগুলো নতুন প্রযুক্তিকে কর্মক্ষেত্রে প্রয়োগ করতে অনেকটা সময় নেয় এবং নিরাপত্তার বিষয়ে চিন্তিত থাকে। কিন্তু এই একটি প্রতিবন্ধকতা দূর হলে ট্যাবলেট বাজার আবার চাঙা হয়ে উঠতে পারে বলেই মন্তব্য করেছে সিএনএন।

এ সমস্যাটির সমাধানের জন্য অ্যাপল এবং আইবিএম চুক্তিবদ্ধও হয়েছে। যার জন্য বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন ট্যাবলেট বাজার দ্বিতীয় বারের মতো জনপ্রিয় হতে পারে। আর তাই প্রতিবেদনের শেষে সিএনএন মন্তব্য করেছে ট্যাবলেটের মৃত্যু হয়নি, এটি এখন বিশ্রাম নিচ্ছে!

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন