নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকজুম ডটটিভি: অনলাইনে তথ্য সংরক্ষণ নিয়ে বাংলাদেশে চতুর্থ বারের মত অনুষ্ঠিত হলো ‘ক্লাউড ক্যাম্প’ সম্মেলন।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৫ সম্মেলনের তৃতীয় দিনে বঙ্গবন্ধু আন্তর্র্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে আয়োজিত সম্মেলনে অংশ নেন প্রায় তিন শতাধিক প্রযুক্তি প্রেমী।

ক্লাউড ক্যাম্প বাংলাদেশ এর আহবায়ক মাহমুদ জামানের সঞ্চালনায় সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এর নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলাম।

সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক এবং অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন প্রকল্পের পরিচালক কবির বিন আনোয়ার, বেসিসের নির্বাহী পরিচালক সামি আহমেদ সহ অন্যান্য সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তারা।

সম্মেলনে আশরাফুল ইসলাম বলেন, সময়ের সাথে সাথে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রযুক্তির প্রভাব বেড়েই চলছে। কম্পিউটার আমাদের জীবনকে যেমনটা সহজ করেছে, তেমনি এর নিরাপত্তা নিয়েও আমাদের ভাবনা রয়েছে। ক্লাউড কম্পিউটিং ধারনাটা আমাদের দেশে নতুন। আজকের এই সম্মেলন সেই ঘাটতি পুশিয়ে নিতে সক্ষম হবে।

বর্তমান বিশ্বে ক্লাউড কম্পিউটিং এর গুরুত্ব তুলে ধরে ক্লাউড ক্যাম্প এর সহ- প্রতিষ্ঠাতা ডেভ লেইলসন বলেন, “আজকে আমরা যে বিশ্বব্যাপী ক্লাউড ককম্পিউটিং নিয়ে কথা বলছি, বিভিন্ন আয়োজন করছি, এই ধারনাটিও কিন্তু প্রযুক্তি আইকন স্টিভ জবস প্রথম ১৯৯৭ সালে তার অ্যাপল এ পরিচয় করিয়েছেন।”

তিনি বলেন, প্রযুক্তির সাথে সাথে এর ভিন্নতাও আমাদেরকে জানতে হয়। আমরা একই ডকুমেন্ট আমাদের মোবাইল ট্যাবলেট এবং ব্যাক্তিগত কম্পিউটারে ব্যাবহার করছি। ক্লাউড কম্পিউটিং আমাদের সকল পর্যায়ে একই অভিজ্ঞতা দিচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ক্লাউড কম্পিউটিং এর চারটি বৈশিষ্ট্য এই সেবাটিকে অনন্য করেছে। প্রথমত- প্রয়োজন অনুযায়ী তথ্যেও ব্যাবহার, নিজস্ব নিয়ন্ত্রণ, পরিমাপযোগ্যতা এবং তথ্যের স্থিতিস্থাপকতা।

বর্তমানে প্রায় সকল প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানই ক্লাউড কম্পিউটিং সেবা দিচ্ছে। এর কারণ হলো বিগ ডেটা। প্রতিদিনই ওয়েবে যুক্ত হচ্ছে বড় আকারের তথ্য। যেমন- গুগলের জিমেইল, মাইক্রোসফটএর আজিউর সব গুলোই ক্লাউড কম্পিউটিং।

সম্মেলনে সরকারি সেবায় ক্লাউড কম্পিউটিং, ক্লাউড কম্পিউটিংয়ের নিরাপত্তা নিয়ে আলোচনা করেন বক্তারা।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন