স্মার্টফোন হতে পারে আপনার চিকিতসক

0

আপনার স্মার্টফোনটি আপনার সবচেয়ে প্রিয় বন্ধুই কেবল নয়, এটা হতে পারে আপনার প্রশিক্ষক, কোচ, মেডিকেল ল্যাব, এমনকি আপনার চিকিৎসকও।

আপনার সুবিধার কথা মাথায় রেখেই বর্তমান প্রযুক্তি শিল্পে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে ‘ডিজিটাল হেল্থ’কে। বড় বড় কোম্পানিগুলো তাই এদিকেই বেশি নজর দিচ্ছে। স্বাস্থ্য এবং রোগের ক্ষেত্রে কীভাবে স্মার্টফোনকে কাজে লাগানো যায় সেই নিয়েই চলছে গবেষণা। এমন কিছু অ্যাপ তৈরি করা হয়েছে, যা আপনার হার্ট রেট, রক্তচাপ, রক্তে চিনির পরিমাণ নির্ণয় করবে। গুগল, অ্যাপল এবং স্যামসাং এটাকে আরও সহজ করার প্ল্যাটফর্ম তৈরি করেছে, যাতে স্মার্টফোনের সাহায্যে চিকিৎসা সেবা দেয়া যায়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এমন কিছু সেন্সর থাকবে যা আপনার শরীরের তথ্য সংগ্রহ করবে এবং রোগ নির্ণয় করবে। ফলে তাৎক্ষণিকভাবে আপনি হাসপাতাল যাওয়া থেকে রেহাই পাবেন। আপনি এর সাহায্যে নিজের হার্ট রেট চেক করতে পারবেন, ইলেকট্রোকার্ডিওগ্রাম করতে পারবেন। তাই চিকিৎসা খাতে আপনার খরচও অনেক কমবে।

কনসাল্টেন্সি রক হেল্থ বলছে, চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসেই ১৪৩টি ডিজিটাল স্বাস্থ্য কোম্পানি ২.৩ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে। ২০১৪ সালে স্মার্ট গ্লাস, ফিটনেস ব্যান্ড এবং স্মার্ট ঘড়ি বিক্রি হবে প্রায় ১০ মিলিয়ন পিস।

ক্যালিফোর্নিয়া স্টার্টআপ এমডি রিভলিউশন এমন একটি সিস্টেম বা ব্যবস্থা তৈরি করেছে, যা দিয়ে ব্যবহারকারীরা প্রাথমিক চিকিৎসার কাজগুলো করতে পারবে। এর মুখপাত্র লিসা পিটারসন সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছে, আমরা বিশেষ ধরনের ডিজিটাল স্বাস্থ্য সেবা তৈরি করেছি, যার মাধ্যমে পুষ্টিবিদ, মনোবিদ এর সাথে আলোচনা করার সুযোগ থাকছে। ফলে জটিল কোনো রোগের সমাধানও পাচ্ছেন আপনি।

সাম্প্রতিক কয়েকটি গবেষণায় দেখা গেছে, যারা এ ধরনের অ্যাপ ব্যবহার করছেন, তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যেমন বাড়ছে তেমনি কর্মক্ষেত্রেও বেশ উন্নতি করছেন তারা। বিশেষ করে যাদের উচ্চরক্তচাপ এবং ডায়াবেটিস আছে, তারা এ রোগগুলো নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন সহজেই।
সূত্র : ডি. ডাব্লিউ

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন