বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ডের নিবন্ধন শুরু
৫ ক্যাটাগরিতে ১০০ ফ্রিল্যান্সারকে পুরস্কার দেবে বেসিস

1

নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকজুম ডটটিভি// দেশে পঞ্চমবারের মতো ‘বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড’ আয়োজন করতে যাচ্ছে বেসিস। সম্ভাবনাময় আউটসোর্সিং পেশার সঙ্গে জড়িত প্রতিষ্ঠান, একক ফ্রিল্যান্সার, নারী ফ্রিল্যান্সার ও জেলাভিত্তিক ফ্রিল্যান্সার ক্যাটাগরিতে সেরা সর্বমোট ১০০ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে।

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে আজ (২৮ মে) এ তথ্য জানিয়েছে সংগঠনটি।

বেসিস সভাপতি শামীম আহসানের সভাপতিত্বে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড ২০১৫ এর আহ্বায়ক ও বেসিসের কোষাধ্যাক্ষ শাহ ইমরাউল কায়ীশ ও ব্যাংক এশিয়ার উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আরফান আলী।

এছাড়া সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি এম রাশিদুল হাসান, মহাসচিব উত্তম কুমার পাল, নির্বাহী পরিচালক সামি আহমেদ প্রমুখ।

বেসিস সভাপতি শামীম আহসান বলেন, বাংলাদেশকে পর্যায়ক্রমে একটি উন্নত দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে তথ্যপ্রযুক্তির কোনো বিকল্প নেই। আর এজন্য প্রয়োজন তথ্যপ্রযুক্তিকে দক্ষ বিপুল পরিমাণ জনশক্তি। বেসিস এই বিপুল পরিমাণ দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় আউটসোর্সিং পেশায় আগ্রহী করতে ও সংশ্লিষ্টদের সফলতা বাড়াতে বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হচ্ছে। আমরা শুধু মুক্ত পেশায় নয়, রফতানি খাতে বিশেষ অবদানকেও গুরুত্ব দিচ্ছি। আমরা মনে করি বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড প্রদানের মধ্য দিয়ে সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে এই পেশায় জনবল বাড়বে এবং তাদের আয় দেশের অর্থনীতিতে ভিন্নমাত্রা যোগ করবে। আর এর মাধ্যমে ২০৪১ সাল নয়, আগামী ১৫ থেকে ২০ বছরের মধ্যেই বাংলাদেশ উন্নত দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হবে।

বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড ২০১৫ এর আহবায়ক শাহ ইমরাউল কায়ীশ আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ডের বিগত বছরগুলোর অর্জন ও বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড ২০১৫ এর পরিকল্পনা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ২০১১ সাল থেকে বেসিস ফ্রিল্যান্সারদের উৎসাহিত করার জন্য এবং তরুণদের অনলাইন আউটসোর্সিংয়ে আগ্রহী করার জন্য এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করে আসছে।

গত বছরের মত এবারও সর্বমোট ১০০টি অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। আউটসোর্সিংকে সারাদেশে ছড়িয়ে দেবার জন্য ৬৪টি জেলা থেকে সেরা ৬৪জন ফ্রিল্যান্সার তথা আইটি উদ্যোক্তাদের এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। এছাড়াও ৬টি ভিন্ন ভিন্ন ক্যাটাগরিতে (ওয়েব অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপমেন্ট, এসইও ও অনলাইন মার্কেটিং, ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, অনলাইন ব্লগিং, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন) ৩ জন করে সর্বমোট ১৮ জনকে ব্যক্তিগত ক্যাটাগরিতে এবং ৩ জনকে নারী ক্যাটাগরিতে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। পাশাপাশি প্রাতিষ্ঠানিক ক্যাটাগরিতে ১৫টি প্রতিষ্ঠান আউটসোর্সিং খাতে বিশেষ অবদানের জন্য বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড পাবে। কয়েকটি ধাপে নিবিড় পর্যালোচনা ও সাক্ষাতকারের মাধ্যমে বিজয়ী নির্বাচন করা হবে। অ্যাওয়ার্ড প্রদানের ক্ষেত্রে রপ্তানীর পরিমাণ, কর্মসংস্থান ও তাদের সামাজিক ভূমিকাকে প্রাধান্য দেয়া হবে।

ব্যাংক এশিয়ায় উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আরফান আলী বলেন- অনলাইন আউটসোর্সিংয়ে উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ড প্রদানের এই মহতী উদ্যোগের সাথে সম্পৃক্ত হতে পেরে আমরা গর্বিত। আগামীতেও এ কর্মযজ্ঞের সাথে আমরা প্রত্যক্ষভাবে সম্পৃক্ত থাকবো বলে আশা করি।

এবারের আয়োজনে সহযোগিতায় রয়েছে আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল (আইবিপিসি) ও বেসিস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট (বিআইটিএম)। প্লাটিনাম স্পন্সর হিসেবে পৃষ্ঠপোষকতা করছে ব্যাংক এশিয়া এবং অনলাইন মানি ট্রান্সফার সেবাদাতা আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান পেওনিয়ার। এছাড়া গোল্ড স্পন্সর হিসেবে সহযোগিতা করছে দেশের শীর্ষ চাকরি বিষয়ক ওয়েব পোর্টাল বিডিজবস ডটকম।

যেভাবে পুরস্কারের জন্য আবেদন করা যাবে
আগ্রহী ফ্রিল্যান্সার ও এ খাতের সঙ্গে যুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়ার্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে (http://outsourcingaward.basis.org.bd) গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবে। আজ বৃহস্পতিবার থেকে নিবন্ধন শুরু হচ্ছে এবং শেষ হবে ২০ জুন। জুন মাসের শেষ সপ্তাহে আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্রিল্যান্সারদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবে বেসিস। বিস্তারিত জানতে অথবা সহযোগিতা পাওয়া যাবে ০১৭৬৬-৮৮১১১১ নাম্বারে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন