অনলাইন ব্যাংকিং
আরটিজিএসের মাধ্যমে ৩০ সেকেন্ডেই ক্যাশ টাকা স্থানান্তর

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকজুম ডটটিভি// অনলাইন ব্যাংকিংয়ের জন্য দরকারি প্রযুক্তি রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট (আরটিজিএস) নিয়ে শনিবার রাজধানীর পূর্বাণী হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে একটি সেমিনার। এর আয়োজক বাংলাদেশ ব্যাংক ও প্রধান কারিগরি কর্মকর্তাদের সংগঠন সিটিও ফোরাম।

আরটিজিএস মূলত অনলাইনে এক ব্যাংক হতে অন্য ব্যাংকে তাৎক্ষণিক তহবিল স্থানান্তরের বিশেষায়িত পদ্ধতি।

সেমিনারে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক শুভঙ্কর সাহা বলেন, আগামী অক্টোবরের ৮ তারিখের মধ্যেই বাংলাদেশে আরটিজিএস নিয়ে আসার জন্য আমরা পরিকল্পনা করছি। আরটিজিএসের মাধ্যমে গ্রাহক ৩০ সেকেন্ডেই ক্যাশ টাকা এক ব্যাংক থেকে অন্য ব্যাংকে স্থানান্তর করতে পারবেন।

শুভঙ্কর সাহা আরও বলেন, ওয়ান টু ওয়ান টাকা স্থানান্তরের অনলাইন প্রক্রিয়া যাতে কোনো রকম ঝামেলা ছাড়াই লেনদেন সম্ভব। যদিও ক্যাশ টাকা স্থানান্তরের নতুন প্রযুক্তি নিয়ে আসা এবং তা পরিচালনা করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু আলোচনার মাধ্যমে লোকজনের মাঝে এর ধারণা ছড়িয়ে দেওয়া গেলে এটাকে পরিচিত করাও খুব কঠিন কিছু নয়।

সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের সভাপতি তপন কান্তি সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি পরিচালক খন্দকার আলি কামরান আল জাহিদ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের জেনারেল ম্যানেজার (পিএসডি) কে এম আব্দুল ওয়াদুদ এবং ফ্লোরা লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোস্তফা শামসুল ইসলাম বিশেষ অতিথি হিসেবে সেমিনারে বক্তব্য দেন। সেমিনারে প্রযুক্তি পণ্য সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ফ্লোরা লিমিটেড একটি রিয়েল টাইম পেমেন্ট সলিউশন প্রদর্শন করে।

আরটিজিএস প্রসঙ্গে খন্দকার আলি কামরান আল জাহিদ বলেন, একই ব্যাংক হলে অন্যান্য সাধারণ লেনদেনের সঙ্গে এটি বিটুবি লেনদেনকে ত্বরান্বিত করবে। তবে পরিচালনা এবং গ্রাহককে ক্যাশ নিশ্চিত করাটাই আরটিজিএসের প্রধান চ্যালেঞ্জ।

তপন কান্তি সরকার বলেন, অনলাইনে জটিলতা মুক্ত তাৎক্ষণিক সেবা দিতে একটি কার্যকর পদ্ধতি আরটিজিএস। এটি ব্যক্তি পর্যায়ে তাৎক্ষণিক লেনদেন এবং ক্রেতার ডেবিট ক্রেডিট হিসাবে নির্ভুল এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। এর প্রসার দেশের জিডিপিতেও অবদান রাখতে পারে বলেও মনে করেন তিনি।

সেমিনারে আরটিজিএস এর বিভিন্ন সুবিধা, সেবা, চ্যালেঞ্জ এবং এই পদ্ধতিতে রূপান্তরের জন্য কি পরিবর্তন দরকার সে সম্পর্কে আলোচনা করতে বিভিন্ন ব্যাংকের কারিগরি কর্মকর্তাদের মধ্যে একটি প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে এর প্রাযুক্তিক দিক, সফটওয়্যার এবং সিকিউরিটি নিয়েও আলোচনা করা হয়। এতে ছিলেন উপস্থিত ছিলেন সিটিও ফোরাম বাংলাদেশের মহাসচিব ইজাজুল হক বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (পিএসডি) রেজাউল করিম, সাউথ-ইস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এস এম মাইনুদ্দীন চৌধুরী, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ইভিপি অ্যান্ড সিআইও মো: শাহ আলম পাটোয়ারী, বাংলাদেশ ব্যাংকের সিনিয়র সিস্টেম অ্যানালিস্ট মোঃ রাহাত উদ্দিন, বাংলাদেশ ব্যাংকের সিস্টেম অ্যানালিস্ট হিমাদ্রি শেখর সরদার ও মো: মশিউজ্জামান।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন