দিনাজপুর প্রতিনিধি, টেকজুম ডটটিভি// দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল অ্যাপস প্রশিক্ষক ও সৃজনশীল অ্যাপস উন্নয়ন কর্মসূচির অধীনে একটি সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার সরকারের তথ্য ও প্রযুক্তির বিভাগের উদ্যোগে এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সেবা সমূহ মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ হিসেবে জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল অ্যাপস প্রশিক্ষক ও সৃজনশীল অ্যাপস উন্নয়ন’ কর্মসূচি চলছে। কর্মসূচির আওতায় দেশের ১৭টি পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। এ ছাড়া সাতটি বিভাগে মোবাইল অ্যাপস ব্যবহার বিষয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি সেমিনারের আয়োজন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এম রুহুল আমীন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কর্মসূচির পরিচালক ও সরকারের অতিরিক্ত সচিব ফকরুদ্দিন আহমেদ চৌধুরী।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে কর্মসূচির বাস্তবায়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান ইএটিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম. এ. মুবিন খান, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের ডিন নওসের ওয়ান, দিনাজপুর জেলার এডিসি তৌফিক ইমাম এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স বিভাগের পরিচালক শাহাদাত হোসাইন খান উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এম রুহুল আমীন বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির প্রসার বিভিন্ন ভাবে দেশের অর্থনীতিতে ইতিবাচক অবদান রাখছে এবং ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে এ উদ্যোগ একটি মাইলফলক হিসেবে ভূমিকা রাখবে।

মুবিন খান বলেন, বর্তমান পৃথিবীতে প্রতি সেকেন্ডে পৃথিবীতে ১৭টি অ্যান্ড্রয়েড ফোন চালু হচ্ছে। আগামী পাঁচ বছরে ক্রমবর্ধমান মোবাইল অ্যাপসের চাহিদা মেটাতে পৃথিবীতে প্রায় ২৬ লাখের মতো মোবাইল অ্যাপস নির্মাতার প্রয়োজন পরবে। আমরা দেশের পাবলিক ও প্রাইভেট সংগঠন সমূহের সহযোগিতায় প্রায় এক লাখ অ্যাপস নির্মাতা গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি যা আমাদের দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাকে বদলে দেবে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন