'প্রশাসনিক কার্যক্রমে কাগজের ব্যবহার কমে যাবে'

0

দ্রুত ডাটা ট্রান্সফার, ভিডিও কনফারেন্সিং ও আইপি ফোন ব্যবহারের সুবিধাসহ ইনফ্রা নেটওয়ার্কিংয়ের ক্ষেত্রে সরকারি দপ্তরগুলো কোন ভোগান্তিতে পড়বে না। যোগাযোগের নতুন প্লাটফর্মে এলো মন্ত্রণালয় হতে শুরু করে উপজেলা পর্যায়ের সরকারি দপ্তর।

বাংলাগভ ডটনেট প্রকল্পের আওতায় ‘ন্যাশনাল ব্যাকবোন নেটওয়ার্ক অব বাংলাদেশ গভর্নমেন্ট’ কার্যক্রম বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে অভিন্ন এই অনলাইন যোগাযোগ ব্যবস্থা তৈরি করা হয়।

সরকারি কার্যালয়গুলোর এই আন্তঃযোগাযোগ ব্যবস্থার ফলে কার্যক্রমে গতি আসা, কাগজের ব্যবহার কমে যাওয়া, জনপ্রশাসনে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার ও প্রয়োগে দক্ষতা তৈরি হবে ।

মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক বাংলাগভ ডটনেট প্রকল্পে বাস্তাবায়িত এই যোগাযোগ ব্যবস্থার উদ্বোধন করেন।এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এই অনলাইন যোগাযোগ ব্যবস্থায় ৫৮টি মন্ত্রণালয়-বিভাগ, ২২৭টি অধিদপ্তর, দপ্তর, সংস্থা, ৬৪টি জেলা ও প্রতি জেলার ১টি উপজেলা সংযুক্ত করা হয়েছে। এতে ঢাকায় ৪৩ কিলোমিটার ফাইবার অপটিক লাইনও বসেছে।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এই যোগাযোগ ব্যবস্থার সার্বিক দেখভাল করবে। এজন্য বিসিসি ভবনে নেটওয়ার্ক অপারেশন সেন্টার (এনওসি) স্থাপন করা হয়েছে।

ইসমত আরা সাদেক বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের হাতিয়ার। তাই উন্নয়নের মহাসড়ক ধরে এগিয়ে যাওয়ার পথে এই যোগাযোগ ব্যবস্থা একটি মাইলফলক। ই-গর্ভন্যান্স বাস্তবায়নের জন্য দেশব্যাপী উপযুক্ত নেটওয়ার্ক ব্যাকবোন স্থাপিত হলো।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বাংলাগভ ডটনেটের সফল বাস্তবায়নের ফলে সরকারের কার্যক্রমে কোনো স্থবিরতা থাকবে না। এছাড়া দৈনন্দিন প্রশাসনিক কার্যক্রমে কাগজের ব্যবহার কমে আসবে অনেকাংশে।

কোরিয়ার আর্থিক সহায়তায় ডেভেলপমেন্ট অব ন্যাশনাল আইসিটি ইনফ্রা-নেটওয়ার্ক ফর বাংলাদেশ গভর্নমেন্ট (বাংলাগভ ডটনেট) প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে বিসিসি।

বিসিসির নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রকল্পটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন কেবিনেট সচিব মো. নজরুল ইসলাম, তথ্যপ্রযুক্তি সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত ইয়ুন ইয়ং লি, বাংলাগভ ডটনেট প্রকল্প পরিচালক মাহবুবুর রহমান।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন