ট্র্যাকিংয়ে হয়রানি থেকে বাঁচাতে এলো ডাকডাকগো

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// সার্চ ইঞ্জিনের নজরদারিতে তিতিবিরক্ত? নাছোড়বান্দা ট্র্যাকিংয়ে হয়রান হয়ে গিয়েছেন? চিন্তা নেই, এসে গিয়েছে সমাধান। গুগল, ফায়ারফক্স, ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের চেনা গণ্ডি ছেড়ে শরণ নিন ডাকডাকগো-এর। এই সার্চ ইঞ্জিন আপনাকে ট্র্যাক করে না।

ইন্টারনেটের খড়ের গাদায় ছুঁচ খোঁজার হাত থেকে বাঁচতে সার্চ ইঞ্জিনের আবির্ভাব কয়েক দশক হল। প্রয়োজনীয় তথ্যভাণ্ডারের হদিশ পেতে সঠিক ওয়েবসাইটের ঠিকানা জোগানোর পাশাপাশি আরও অসংখ্য বিষয়ে সাহায্য করে আধুনিক সার্চ ইঞ্জিনগুলি। গুগলের নলেজ গ্রাফ ফিচার যেমন ক্যালকুলেটর, বিমান চলাচল সম্পর্কীয় তথ্য মায় মূদ্রা বিনিময়ের জরুরি তথ্য সরবরাহ করে। তবে নলেজ গ্রাফের কিছু সমস্যাও রয়েছে। এই ফিচারে সব সময় একই উত্তর মেলে না। অর্থাত্ একই বিষয়ে সার্চ করলে বিভিন্ন সময় একাধিক উত্তর পাওয়া যায়, যা থেকে বিভ্রান্তি তৈরি হয়।

এতো গেল প্রাথমিক সমস্যা। এছাড়া যেকোনো সার্চ ইঞ্জিনে তথ্য জানতে সার্চ করতে গেলেই আপনি চান বা না-চান, ট্র্যাকিংয়ের খপ্পরে পড়তেই হবে। প্যারাসিটামল থেকে পর্নোগ্রাফি, যা-ই খুঁজুন না কেন, আপনার পায়ের ছাপ থেকে যাচ্ছে ইন্টারনেটের খাতায়। এমনকি, গুগল-এ যে অ্যানোনিমাস অপশন দেওয়া থাকে, কর্তৃপক্ষের দাবি অনুযায়ী যে পরিচয়ে সার্চ করলে ট্র্যাক্ড হওয়ার সম্ভাবনা নেই, তাতেও গলদ রয়েছে। ব্যাপারটা স্পষ্ট হয় যখন ইউজারের স্ক্রিনে কিছু ক্ষণের মধ্যেই সার্চের বিষয়ভিত্তিক বিজ্ঞাপনের ছররা ফুটে ওঠে।

ডাকডাকগো এমনই এক সার্চ ইঞ্জিন যার ক্যাচলাইনে সাফ ঘোষণা করা হয়েছে, ‘এই সার্চ ইঞ্জিন আপনাকে ট্র্যাক করে না।’ ফাঁকা আওয়াজ নয়, সার্চ ইঞ্জিনের পাতায় বিজ্ঞাপনের আধিক্য না থাকার অন্যতম কারণই এই নীতি। গ্রাহকের গোপনীয়তাকে এখানে সম্মান দেওয়া হয়। এই সার্চ ইঞ্জিন আপনার অনুসন্ধানের চরিত্রভিত্তিক সার্চ রেজাল্ট সাজায় না। সার্চ হিস্ট্রি ঘেঁটে আপনার আগ্রহ আন্দাজ করে প্রতিনিয়ত পিসি, ল্যাপটপ বা হ্যান্ড ডিভাইসের স্ক্রিনে গাদা গাদা ওয়েবসাইটের বিজ্ঞাপন ভাসিয়ে দেয় না। অথচ চটজলদি দরকারি তথ্য সরবরাহ করতে এর জুড়ি নেই।

সম্প্রতি ইউজারদের সুবিধার্থে বেশ কিছু নয়া ফিচার যোগ করেছে ডাকডাকগো। এর মধ্যে উল্লেখয়োগ্য ইনস্ট্যান্ট অ্যানসার্স। অ্যাপল-এর iOS 8 এই সার্চ ইঞ্জিনকে সাপোর্ট করে। গুগল নলেজ গ্রাফের চেয়ে এখানে পাওয়া উত্তর অনেক বেশি নির্ভরযোগ্য এবং সেই অবিভ্রান্তকর। ডাকডাকগো-এর আরেকটি সুবিধা হল, সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল দেখতে হলে সার্চ ইঞ্জিন ছেড়ে বের হতে হয় না। শুধু তাই নয়, অন্য ওয়েবসাইটের ভিতরে সহজেই প্রবেশ করা যায়। গুগল ব্যবহার করলে যেমন সাইট মডিফায়ারের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সাইটে ঢোকা দস্তুর, এখানে সে সবের বালাই নেই। ডাকডাকগো ইউজারকে সরাসরি ওয়েবসাইটের নিজস্ব সার্চ ফাংশানে পৌঁছে দেয়।

অ্যাপের হদিশ পেতেও অনবদ্য ডাকডাকগো। যে কোনও জনপ্রিয় অ্যাপের সন্ধান দেওয়ার পাশাপাশি তার বৈশিষ্ট, কার্যকারিতা ও দাম সহ বিস্তারিত বিবরণ মেলে এখানে। এমনকি অ্যাপস ব্যবহারে সমস্যা দেখা দিলে তার বিকল্প রাস্তাও বাতলে দেয় এই সার্চ ইঞ্জিন। এমএস অফিস ঘেঁটে ঘেঁটে বোর হয়ে গিয়েছেন? ডাকডাকগো-তে “Alternative to Word” সার্চ দিয়ে দেখুন। একাধিক বিকল্পের হদিশ মিলবে সঙ্গে সঙ্গে। সাধারণ ইউজার থেকে ওয়েব ডেভেলপার, একগুচ্ছ লোভনীয় ফিচার নিয়ে গ্রাহক-দরবারে এর মধ্যেই সাড়া ফেলে দিয়েছে ডাকডাকগো।

গুগল, ফায়ারফক্স, ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার তো অনেক হল, এবার একবার হংসপাখায় ভর করে নেট দুনিয়া চষে দেখুনই না। আশা করি হতাশ হবেন না।

সূত্র: ওয়েবসাইট

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন