বাংলাদেশসহ সার্ক দেশে অভিন্ন স্যাটেলাইট তৈরি করবে ভারত

0

বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার সার্ক জোটভুক্ত দেশগুলো সবাই ব্যবহার করতে পারবে, এমন একটি কৃত্রিম উপগ্রহ বানাবে এ অঞ্চলের সবচেয়ে বড় দেশ ভারত।

ইতোমধ্যে এ ব্যাপারে উদ্যোগ নিতে ভারতীয় মহাকাশ বিজ্ঞানীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বিবিসি সূত্রে এ খবর জানা গেছে।

ভারতের পিএসএলভি সি-২৩ রকেটের সফল উৎক্ষেপণের সময় হাজির থাকা মি মোদী বলেছেন, এই প্রস্তাবিত ‘সার্ক স্যাটেলাইট’ হবে প্রতিবেশী দেশগুলোকে ভারতের উপহার। পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানে সার্ক নেতাদের আমন্ত্রণ জানানোর পর এই স্যাটেলাইটই হতে যাচ্ছে মি মোদীর সার্ক কূটনীতির আর একটি চাল।

ভারতের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো আজ যে পোলার স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকল বা পিএসএলভি সি-২৩ রকেটটির সফল উৎক্ষেপণ সম্পন্ন করল, তা মহাকাশে বয়ে নিয়ে গেল মোট চারটি বিদেশি রাষ্ট্রের স্যাটেলাইট – ফ্রান্স, জার্মানি, কানাডা ও সিঙ্গাপুর।

সফল উৎক্ষেপণ শেষে মোদী বলেন, ভারত সার্ক স্যাটেলাইট তৈরি করবে। এটা হবে প্রতিবেশী দেশেগুলোর জন্য ভারতের উপহার। আমরা অনেক করেছি, কিন্তু আরও কিছু করতে মন চায়। ভারতের প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আমি শুনেছি হলিউড মুভি ‘গ্রাভিটি’ নির্মাণে আমাদের মঙ্গল অভিযানের চেয়ে বেশি ব্যয় হয়েছে। এটা আমাদের একটা গুরুত্বপূর্ণ অর্জন।

ইসরোর বাণিজ্যিক শাখা অ্যানট্রিক্সের সঙ্গে এই দেশগুলোর যে আর্থিক বোঝাপড়া হয়েছে, তার ভিত্তিতেই মহাকাশে উৎক্ষিপ্ত হল এই সি-২৩ রকেট। নিজের চোখে সেই উৎক্ষেপণ দেখতে আজ সকালে শ্রীহরিকোটায় উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, আর সেখানেই তিনি প্রস্তাব দিয়েছেন – বাণিজ্যিক ভিত্তিতে নয়, এবারে বরং শুভেচ্ছার নজির হিসেবে ইসরো ভারতের প্রতিবেশী দেশগুলোর জন্য কিছু করুক।

মোদী সেখানে বলেন, আজ আমি দেশের মহাকাশ বিজ্ঞানীদের প্রতি একটি সার্ক স্যাটেলাইট তৈরি করার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিচ্ছি – যে স্যাটেলাইটটি হবে প্রতিবেশীদের জন্য ভারতের উপহার। এটা হতে হবে এমন একটি স্যাটেলাইট, যা আমাদের সব প্রতিবেশী দেশকে সব ধরনের প্রায়োগিক ও পরিষেবাগত সুযোগসুবিধা দেবে।

প্রধানমন্ত্রী দাবি করেন, ক্ষমতা জাহির করা নয় – বরং ভারতের মহাকাশ গবেষণার মূল লক্ষ্যই হল সেবা। আর সে কারণেই যে সব দেশে মহাকাশ প্রযুক্তি ততটা উন্নত নয়, ভারত তাদের সঙ্গে সেই প্রযুক্তির সুফল ভাগ করে নিতে চায়। যেমন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত তথ্যাবলী ভারত অন্তত ৩০টি দেশের সঙ্গে ভাগ করে নেয় – টেলিমেডিসিনের সুবিধা পৌঁছে দেয় অফ্রিকার বহু দেশ বা আফগানিস্তানে। কিন্তু মি মোদীর কথা অনুযায়ী – ভারত সেখানেই থেমে থাকতে চায় না, আর সে কারণেই এই সার্ক স্যাটেলাইটের প্রস্তাবনা:

তাঁর কথায়, সার্ক দেশগুলোতে দারিদ্র-অশিক্ষা-কুসংস্কারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে, বিজ্ঞানের জগতে অগ্রগতির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় কিংবা তরুণদের সামনে নতুন সম্ভাবনা সৃষ্টির ক্ষেত্রে আমাদের এই সার্ক স্যাটেলাইটের স্বপ্ন সব প্রতিবেশী দেশেরই ভীষণ কাজে আসবে। এই স্যাটেলাইটের স্বপ্নকে সফল করে আমরাও তাদের উন্নয়নে ভাগীদার হতে চাই।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোর অভিন্ন মহাকাশ গবেষণা কর্মসূচী ও স্যাটেলাইট প্রকল্প থাকলেও পৃথিবীতে আর কোথাও কোনও আঞ্চলিক জোটের অভিন্ন স্যাটেলাইট প্রকল্প নেই। সার্কের জন্য নরেন্দ্র মোদী যদি তা সত্যিই করে দেখাতে পারেন, তুলনামূলকভাবে কম খরচে দক্ষিণ এশিয়ায় সেটা হবে এক নজিরবিহীন পদক্ষেপ। ফলে বাংলাদেশ, নেপাল, ভূটান বা শ্রীলঙ্কা তো বটেই, এমন কী পাকিস্তানও ভারতের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাবে বলেই আশা করছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন