চলতি বছরের হজযাত্রীদের ভিসা কার্যক্রম চলছে। হজযাত্রীদের জন্য হজফ্লাইট শুরু হচ্ছে ১৬ আগস্ট থেকে। রাজধানীর আশকোনা হজক্যাম্পের তিনতলায় প্রযুক্তিনির্ভর ভিসা লজমেন্ট কেন্দ্র চালু হয়েছে। ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষে বিজনেস অটোমেশন লিমিটেড এটি পরিচালনা করছে।

১ লাখ ১ হাজার ৭৫৮ জন বাংলাদেশি হজ পালন করতে যাবেন এ বছর।সরকারি ব্যবস্থাপনায় ২ হাজার ৭৫৪ জন, বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালন করবেন।

হজ লজমেন্ট কেন্দ্রের আইটি হেল্প ডেস্কের (ইনচার্জ) কবির আল মামুন জানালেন, এবার সৌদি কর্তৃপক্ষের নিয়মানুসারে ইহজ ওয়েবসাইটে (www.ehaj.gov.sa) তথ্য পূরণ করলে সেই তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে চলে যায় এবং একটা অনুসরণ নম্বর দেয়। সেই নম্বর সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে ভিসা লজমেন্ট করা হয়।

১২টি কম্পিউটারে ইন্টারনেট সংযোগসহ এই সেবা দেওয়া হচ্ছে। যেসব এজেন্সি হজযাত্রীর বারকোড স্টিকার, ইউজার পাসওয়ার্ড পেয়েছে, সেসব এজেন্সির প্রতিনিধি এখন ভিসা লজমেন্ট করছেন।

সৌদি সরকারের চাহিদা অনুযায়ী অপটিক্যাল ক্যারেক্টার রিডার যন্ত্র দিয়ে পাসপোর্ট স্ক্যান করা হয়। যন্ত্রে পাঠযোগ্য পাসপোর্টের (এমআরপি) ২ নম্বর পৃষ্ঠার শেষ দুটি লাইন যেখানে জাতীয়তা, বংশগত নাম, প্রদত্ত নাম, পাসপোর্ট নম্বর, পাসপোর্ট প্রদানের তারিখ, লিঙ্গ, পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হওয়ার তারিখ পাওয়া যায়। এর বাইরে বাসা, খাবার, আদিল্লার তথ্য ঠিক থাকলে তা চলে যায় সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে। এটি সম্পন্ন হতে ১ থেকে ২ মিনিট সময় লাগে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন