নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// সোলার মোবাইল ফোন চার্জার ব্যবহার করা হয়, সোলার প্যনেলের মাধ্যমে ব্যাটারি চার্জ করার জন্য। মোবাইল ফোনের চার্জারের বিকল্প হিসাবে ব্যবহার করা হয়। পরিবেশ বান্ধব এবং সহজে ব্যবহার করা যায়।

স্মার্টফোন সচল রাখতে রোজ নিয়ম করে চার্জ দিতে হয়। অন্যদিকে দূরে কোথাও ভ্রমণে গেলে চার্জ দেয়াটা ঝক্কির কাজ। যেখানে বিদ্যুৎ নেই সেখানে ব্যাপারটা আরও কঠিন। কিন্তু এমন যদি হয় আপনার স্মার্টফোনে চার্জ দেয়ার জন্য কেনো বৈদ্যুৎতিক প্লাগে সংযোগের প্রয়োজন নেই তবে কেমন হবে? ব্যাপারটি সম্ভব। তবে এর জন্য চাই বিকল্প শক্তির উৎস। আর উৎসটি হলো সোলার।

সম্প্রতি সুং উন চ্যাং নামের একজন কোরিয়ার ডিজাইনার ছোট এবং পাতলা আকারের একটি সোলার প্যানেল তৈরি করেছেন। যেটি দিয়ে অনায়াসেই স্মার্টফোনে চার্জ দেয়া যাবে।

সুংয়ের তৈরি সোলার চার্জারটি সমতল। কাগজের চেয়েও পাতলা এটি। তাই তিনি এটির নাম দিয়েছেন ইয়োক সোলার পেপার। এটি এখন প্রোটোটাইপ পর্যায়ে রয়েছে। সোলার চার্জারটি তৈরির জন্য বর্তমানে সুং অর্থ সংগ্রহের জন্য প্রচারণা চালাচ্ছেন। তার লক্ষ্য ছিল ৫০ হাজার ডলার সংগ্রহ করা। ইতোমধ্যে ফান্ডে জমা হয়েছে ৮ লাখ ৬৯ হাজার ৯৮৭ ডলার।

সুং জানান চার্জারটি সহজেই অপসারণযোগ্য সোলার সেল দিয়ে দিয়ে তৈরি। এই সেলগুলো ম্যাগনেটিক বর্ডারের সাহায্যে সংযুক্ত রয়েছে।

সোলার প্যানেল থেকে ৫ ভোল্ট শক্তি পেতে হলে ‍দুইটি প্যানেলের প্রয়োজন হয়। এই পাঁচ ভোল্টের মাধ্যমে আইফোন ৬ চার্জ দেয়া যাবে। তবে আইপ্যাড চার্জ দেয়ার জন্য চারটি প্যানেল লাগবে। কেননা, চারটি প্যানেলের মাধ্যমে ১০ ভোল্ট পাওয়া যাবে।

সুং জানিয়েছেন, রোদজ্বলা দিনে আইফোন ৬ কে মাত্র দুইঘণ্টায় চার্জ দিতে পারে। কিন্তু মেঘলা দিনে আইফোন ৬ চার্জ দিতে পাঁচ ঘণ্টা লাগে। অন্যদিকে রোদজ্বলা দিনে আইপ্যাড চার্জ দিতে সাড়ে চার ঘণ্টা লাগে। যেখানে মেঘলা দিনে লাগে ৯ ঘণ্টা।

সুং দাবি করেন তিনি ভেবেছিলেন প্যানেলটি চীনে তৈরি করবেন। কিন্তু মানের কথা ভেবে তিনি এটি কোরিয়ায় তৈরি করবেন বলে ঠিক করেছেন।

সুং ধারণা করছেন দুই প্যানেলের একটি চার্জার তৈরি করতে তাদের ১২৫ ডলার খরচ লাগবে। যেখানে চার প্যানেলের খরচ পড়বে ২০০ ডলার।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন