২৫ থেকে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ই-কমার্স মেলা

0

বাংলাদেশের জনপ্রিয় আইসিটি ম্যাগাজিন কমপিউটার জগৎ-এর আয়োজনে আগামী ২৫ থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪ ঢাকায় শুরু হতে যাচ্ছে ই-কমার্স মেলা। এ মেলা অনুষ্ঠিত হবে বেগম সুফিয়া কামাল জাতীয় গণগ্রন্থাগার, শাহবাগ, ঢাকা প্রাঙ্গনে।

এবারের মেলায় দেশের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের পণ্য এবং সেবাসমূহ দর্শনার্থীদের কাছে তুলে ধরবে। প্রদর্শনী ছাড়াও মেলাতে রয়েছে- সেমিনার, কর্মশালা, এওয়্যার্ড নাইট, ই-ডাইরেক্টরি প্রকাশ এবং গেমিং প্রতিযোগিতাসহ নানা আকর্ষণ।

ই-কমার্স মেলা উপলক্ষে ১২ আগস্ট ২০১৪ মঙ্গলবার, ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাব কনফারেন্স রুমে এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। উক্ত সম্মেলনে মেলার আয়োজকগণ সাংবাদিকদের মেলার বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে অবগত করেন এবং মেলা সম্পর্কে আলোচনা করেন।

ই-কমার্স মেলার আহ্বায়ক আবদুল ওয়াহেদ তমাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘ই-কমার্স বাংলাদেশে এখন দিন দিন বেড়েই চলেছে। বাংলাদেশে এখন তিন কোটির বেশি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী রয়েছে। এসব ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের বেশির ভাগই তরুণ-তরুণী। এরা ইন্টারনেট ব্যবহার করে এবং ই-কমার্স সম্পর্কে খুবই আগ্রহী। অনেক তরুণ-তরুণী ৯টা-৫টা চাকরি না করে তাদের নিজেদের ই-কমার্স কোম্পানী প্রতিষ্ঠা করেছে এবং তাদের অনেকেই সফল হয়েছে। দেশে বর্তমানে ছোট বড় মিলিয়ে কয়েক শ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এছাড়াও প্রায় দুই হাজার প্রতিষ্ঠান ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যবসা করছে।’

মেলায় কমপিউটার জগৎ- এর সহকারী সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত রিপোর্ট থেকে জানা যায়, এবারের ঈদে অনলাইন ভিত্তিক বাজার ৪০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছে। এসব অনলাইন কেনাকাটার ৬৫% ফেসবুকে সম্পন্ন হয়েছে। গত বছরের ঈদের অনলাইনে প্রায় ১১ কোটি টাকার মতো লেনদেন হয়েছিল। অনলাইনে কেনাকাটার ৭৫% হয় ঢাকায় আর বাকীটা চট্টগ্রাম, খুলনা, সিলেট, রাজশাহী, বরিশাল, বগুড়াসহ অন্যান্য এলাকায়। এ থেকেই বোঝা যায় যে, দেশে ই-কমার্সের ভবিষ্যত খুবই উজ্জ¦ল। দেশের ই-কমার্স সেক্টরকে এগিয়ে নিয়ে যাবার জন্যে এবং সাধারণ মানুষ যাতে ই-কমার্স সম্পর্কে উৎসাহী হয়ে ওঠে সে লক্ষ্য নিয়েই আমরা এ মেলার আয়োজন করেছি।’

সম্মেলনে বাসবিডি.কম (busbd.com) এবং সোয়ানসফট লি:-এর মার্কেটিং অ্যা- সেলস ডিরেক্টও মো: সিদ্দিকুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘২০১২ সাল থেকে তারা অনলাইনে বাসের টিকিট বিক্রী করে আসছেন এবং বর্তমানে ২০টি পরিবহন সংস্থার টিকিট তারা বিক্রী করছেন। এবারের ঈদে তারা প্রায় বিশ হাজার বাস টিকেট বিক্রী করেছেন। তিনি কমপিউটার জগৎকে তাদের উদ্যোগের প্রশংসা করে তিনি আশা প্রকাশ করেন যে ঢাকা ই-কমার্স মেলা ২০১৪-এর মাধ্যমে দেশের বিশাল সংখ্যক মানুষ তাদের এ সেবার কথা জানতে পারবে।’

কমপিউটার জগৎ-এর বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার আতিকুর রহমান বলেন, ‘ইউরোপে বিভিন্ন দেশে এখন ই-কমার্সের জয়জয়কার। সেখানে ই-কমার্সের প্রসার এত দ্রুত হারে বাড়ছে যে প্রচলিত পদ্ধতির দোকানগুলোর অস্তিত্ব হুমকির সম্মুখীন হচ্ছে। বাংলাদেশে ই-কমার্স সেক্টরের ভবিষ্যত খুবই উজ্জ্বল এবং বিগত ই-কমার্স মেলা গুলোতে হাজার হাজার উৎসাহী মানুষের উপস্থিতিই এ কথা প্রমাণ করে।’

ই-কমার্স ভিত্তিক ব্লগ ইকমবিডি.নেট (ecombd.net) এর সম্পাদক রাজীব আহমেদ বলেন যে, ‘চলতি দশক হচ্ছে এশিয়ার ই-কমার্সের উত্থানের দশক। ২০১৫ সাল নাগাদ চীনের ই-কমার্সের বাজারের আকার দাঁড়াবে ৫৪০ বিলিয়ন ডলার এবং তা যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাড়িয়ে যাবে। প্রতিবেশী দেশ ভারতেও ই-কমার্স দ্রুতগতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে।’

এসএসল কমার্সের সিনিয়র বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার জুবায়ের হোসেন বলেন, ‘বাংলাদেশে ই-কমার্সের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে এবং এ সম্ভাবনাকে বাস্তবে পরিণত করার জন্যে সবাইকে একযোগে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। তিনি আরও বলেন যে ই-কমার্স মেলার শুরু থেকেই কমপিউটার জগৎ-এর সাথে এসএসএল কমার্স ছিল এবং এবারেও থাকছে।

এবারের মেলাতে বিভিন্ন বিষয়ের উপরে সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে যেখানে দেশের ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রির সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ মূল প্রবন্ধ পাঠ করবেন। মেলায় পার্টনার হচ্ছে দ্যা ডেইলি স্টার এবং টিম ইঞ্জিন । এছাড়াও টিভি পার্টনার হচ্ছে একাত্তর, রেডিও পার্টনার ঢাকা এফএম, ওয়েব পার্টনার বাংলানিউজ২৪ ডট কম, গেমিং পার্টনার গিগাবাইট এবং ইন্টারনেট পার্টনার ঢাকা কম লি:। আরো থাকছে বিশিষ্ট আইসিটি ব্যাক্তিবর্গ ও বর্ষসেরা ব্যক্তিত্বকে সম্মান প্রদান উপলক্ষে অ্যাওয়ার্ড নাইট প্রোগ্রাম।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে কমপিউটার জগৎ বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো সফলভাবে ই-কমার্স মেলার আয়োজন করে। ঢাকা মেলার সফলতায় উদ্বুদ্ধ হয়ে কমপিউটার জগৎ সিলেট, চট্টগ্রাম এবং গত বছরের সেপ্টেম্বরে লন্ডনের মিলেনিয়াম গ্লুসেস্টার হোটেলে ইউকে-বাংলাদেশ ই-কমার্স মেলার আয়োজন করে। প্রতিটি মেলাতেই প্রচুর দর্শক সমাগম হয়। তারই ধারাবাহিকতায় এ বছরের মে মাসে পঞ্চমবারের মতো বরিশালে ই-বাণিজ্য মেলা অনুষ্ঠিত হয়।

আশা করা যাচ্ছে যে, এবারের ঢাকা মেলাতে প্রচুর দর্শনার্থীর সমাগম ঘটবে। মেলায় আগত দর্শনার্থীদের কোন প্রবেশমূল্য এবং সেমিনারে অংশগ্রহনকারীদের কোন রেজিষ্ট্রেশন চার্জ প্রযোজ্য নয়।

প্রয়োজনে : মোহাম্মদ এহতেশাম উদ্দিন, মেলা সমন্বয়ক, ই-কমার্স ফেয়ার, 01670223187

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন