নিজস্ব প্রতিবেদক, টেকজুম ডটটিভি// বাংলাদেশে ই-কমার্স একটি সম্ভাবনাময় খাত বলে উল্লেখ করে এ খাতকে আগামী ১০ বছর করমুক্ত রাখতে সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই ক্যাব) এর সভাপতি রাজিব আহমেদ।

রাজধানীর মতিঝিলে বাংলাদেশে ব্যবসায়ীদের অন্যতম শীর্ষ সংগঠন ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ  এর অডিটোরিয়ামে আয়োজিত ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের জন্য “ই-কমার্সঃ প্রত্যাশা ও প্রতিকূলতা” শীর্ষক এক সেমিনার এক সেমিনারে তিনি এ আহবান জানান।

রাজিব আহমেদ বলেন, ই-কমার্সের বাজার সম্ভাবনা অনেক বড়, কিন্তু মোট জনসংখ্যার ১% লোকও এখন অনলাইনে কেনাকাটা করে না। এই সংখ্যাকে যদি ১০% এ উন্নীত করা যায় তাহলে এই খাতে এক বিশাল বাজার তৈরি হবে।

তাছাড়া গ্রাহক পর্যায়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মিডিয়া সাপোর্ট ও এই খাতে দক্ষ জনশক্তি তৈরির জন্য সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে দ্রুত উচ্চশিক্ষা চালুর প্রস্তাবও করেন তিনি।

অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন ডিসিসিআই সভাপতি হোসাইন খালেদ ও মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন টেলিযোগাযোগ, তথ্য ও মেধাস্বত্ত্ব অধিকার বিষয়ক স্থায়ী কমিটির আহ্বায়ক সৈয়দ আলমাস কবির। তিনি বলেন, ই-কমার্সের জয়-জয়কার এখন সাড়া পৃথিবীতে ও বাংলাদেশেও এর জনপ্রিয়তা দিনদিন বাড়ছে। ই-কমার্সের জনপ্রিয়তার প্রধান শর্ত হচ্ছে ক্রেতার আস্থা অর্জন এবং সেজন্য এখনি প্রয়োজন একটি সঠিক ও যুগোপযোগী নিতিমালা যা সকল ই-কমার্স ব্যবসায়ীরা মেনে চলবে।

 

অনুষ্ঠানে বক্তারা ট্রেড লাইসেন্সে ই-কমার্স অন্তর্ভুক্ত করা, অনলাইন সিকিউরিটি, ভোক্তা সুরক্ষা সেল গঠন, কপিরাইট আইন, সকল প্রকার অনলাইন পেমেন্ট কার্ড উন্মুক্ত করা, বিদেশ থেকে ইস্যুকৃত কার্ড সহজে পেমেন্ট গেটওয়েতে গ্রহণ করা, মোবাইল ব্যাংকিং আরও সহজ করা, পেপেলের বিকল্প কোন অনলাইন ওয়ালেট চালু করা, সাড়া দেশে দ্রুত গতির ইন্টারনেট সেবা চালু করা, এসএমই উদ্যোক্তাদের সহজ শর্তে ঋণ প্রদান ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রেখেছেন, ডিসিসিআই’র ডাইরেক্টর কে আতিক-ই-রাব্বানী, বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই শাখার মহাব্যবস্থাপক স্বপন কুমার রায় প্রমুখ।

 

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন