ফেসবুকের প্রাইভেসি নিরাপদ রাখার ১০টি টিপস

0

সাব্বির আহমেদ সুজন, টেকজুম ডটটিভি// সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং এর জগতে ফেসবুক এখন তুমুল জনপ্রিয়। যাদের গড়ে ১২০ জন করে বন্ধু রয়েছে। প্রতিদিন ১ বিলিয়ন ছবি ফেসবুকে আপলোড হয় এবং প্রায় ৭০% ব্যবহারকারী ফেসবুকের বিভিন্ন এ্যাপলিকেশন গেমস এবং কুইজ ব্যবহার করে। অনেকেই জানেন না ব্যক্তিগত তথ্য রাখা , বন্ধু তৈরী করা এবং গেম খেলার ক্ষতিকর প্রভাব গুলো। যা প্রাইভেসি এর জন্য অনেক ক্ষতিকর। আজকে ফেসবুকের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা কিভাবে বজায় রাখা যায় সে বিষয়ে কিছু আপনাদের জানাব। অনেকই জানেন এসব সাধারন উপায় গুলো। যারা জানেন না তাদের জন্যই এই পোষ্ট।

১. ফ্রেন্ড লিষ্ট অর্গানাইজ করুন: যদি আপনার বস, আপনার ক্লায়েন্ট, আত্নীয় কিংবা বাইরের কেউ যখন আপনাকে ফেসবুকে ফ্রেন্ড রিকোয়েষ্ট পাঠাবে তখন আপনি কি করবেন? বিশেষ বিশেষ ফ্রেন্ড লিষ্ট তৈরী করুন। যা আপনার ফেসবুকের প্রাইভেসী অনেকাংশেই নিরাপদ করবে। টপ মেন্যু থেকে Friends সিলেক্ট করুন । তারপর Create সিলেক্ট করে বিভিন্ন নামে আপনার ফ্রেন্ড লিষ্ট তৈরী করুন। যেমন- workers, Family, College Friends, etc. আপনার বন্ধুরা আপনার তৈরী করা ফ্রেন্ড লিষ্ট দেখতে পাবেনা । যা শুধুমাত্র আপনিই দেখতে পাবেন। তাই আপনি আপনার ইচ্ছা মতো আপনার লিষ্ট এর নাম দিন ।
আপনার বাম পাশের সাইড বারে সব ফ্রেন্ড লিষ্ট ডিফল্ট হিসেবে দেখা যায়না । More ক্লিক করে সব লিষ্ট দেখুন এবং যাদেরকে আপনি আলাদা হিসেবে বিভিন্ন লিষ্ট এ রাখতে চান তাদের কে ড্রাগ করে লিষ্ট লিষ্ট এ নিয়ে আসুন ।

২ . Profile Privacy কাষ্টমাইজ করুন: ক্লিক Settings > Privacy Settings > Profile. তারপর আপনার প্রোফাইলের কোন অংশ কে দেখতে পারবে তা সিলেক্ট করুন।

আপনি ড্রপ ডাউন বক্স হতে Customize সিলেক্ট করে আপনার ফ্রেন্ড এর নাম বসিয়েও করতে পারেন । ফ্রেন্ড লিষ্ট তৈরী করা না থাকলে এটা তাৎক্ষনিক ভাবে করা যায়।

এছাড়া Contact Information ট্যাব এ গিয়ে কিভাবে আপনার তথ্য গুলো ইন্টারনেট এ শেয়ার করতে চান তা ঠিক করুন।

৩. ফটো এ্যালবামের প্রাইভেসী সেট করুন:
আপনার প্রোফাইল পেজ এর Photos ট্যাব এ Album Privacy তে ক্লিক করুন । তারপর আপনার কোন ফটো এ্যালবাম কারা দেখতে পারবে তা ফ্রেন্ড লিষ্ট হতে সিলেক্ট করুন ।
আপনার প্রোফাইলের ছবি একটি স্পেশাল এ্যালবামে সংরক্ষিত হয় যা যে কেউ দেখতে পারবে ।

৪. সার্চ ভিজিবিলিটি সীমাবদ্ধ করুন:
ফেসবুকে আপনাকে কেউ সার্চ করলে আপনার ভিজিবিলটি কিরকম হবে তা সেট করতে ক্লিক করুন Privacy > Search । আপনার প্রাইভেসী নিরাপদ রাখতে এটা খুব গুরুত্বপূর্ন । সার্চ রেজাল্ট এ কি কি ভিজিবল হবে তাও আপনি চাইলে সেট করতে পারবেন।

৫. নিয়ন্ত্রন করুন অটোমেটিক ওয়াল পোষ্ট এবয় নিউস ফিড আপডেটস:
ফেসবুকে আপনার কর্মকান্ড যেমন কমেন্টস, কিছু পছন্দ করা, গ্রুপ, ইত্যাদি আপনার সব বন্ধুদের হোম পেইজে হাইলাইটস হয়। আপনি চাইলে এটা নিয়ন্ত্রন করতে পারেন । এখানে আপনার ফ্রেন্ড লিষ্ট কাজ করবেনা , আপনি সব অপশন গুলো টার্ন অফ করবেন।
টার্ন অফ করতে Privacy > News Feed and Wall তে যান ।

৬. ফেসবুক Wall Privacy সেট করুন:
আপনার প্রোফাইল এর স্ট্যাটাস বক্স এর নিচে Options > Settings এ ক্লিক করুন।
আপনার কোন ফ্রেন্ড আপনার Wall এ কিছু পোষ্ট করতে পারবে এবং কারা কারা সেই পোষ্ট দেখতে পারবে তা আপনি এখান থেকে সহজেই নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন।

৭. ফেসবুকের বিজ্ঞাপনে নিজেকে পরিহার করুন:
ফেসবুকে দু`ধরনের বিজ্ঞাপন রয়েছে । কিছু থার্ড পার্টি বিজ্ঞাপন এবং ফেসবুকের নিজস্ব বিজ্ঞাপন। থার্ড পার্টি বিজ্ঞাপন দাতারা বর্তমানে আপনার নাম এবং ছবি ব্যবহারে অনুমতি প্রাপ্ত নয় কিন্তু ভবিষ্যতে হয়তো অনুমতিপ্রাপ্ত হতে পারে বিধায় আপনি আপনার বিজ্ঞাপন সেটিংসটি ডিস্এলাউ করে নিন। Privacy > News Feed and Wall > Facebook Ads tab এ গিয়ে turn off করুন।

৮. বন্ধুদের অ্যাপলিকেশন থেকে নিজেকে রক্ষা করুন:
Privacy > Applications তে যান । Settings ট্যাব এ ক্লিক করে সব বক্স আনচেক করে দিন। এই সেটিংসটি কোন তথ্য আপনি আপনার বন্ধুদের অ্যাপলিকেশন এ ভিজিবল রাখবেন তা নিয়ন্ত্রন করতে আপনাকে সাহায্য করবে। ডিফল্ট হিসেবে সেটিংস গুলো ভিজিবল থাকে। যার অর্থ আপনার ধর্ম, জেন্ডার, সেক্সুয়াল এবয় পলিটিক্যাল ভিউ , ছবি ইত্যাদি সবসময় ফেসবুকের সব এ্যাপলিকেশন ডেপেলপারদের কাছে সহজলভ্য হয়ে যায় , যখন আপনার কোন বন্ধু কোন ক্যুইজ গ্রহন করে অথবা গেম খেলে অথবা অন্য কোন ফেসবুক অ্যাপলিকেশন চালায়। এটা অবশ্যই আপনার প্রাইভেসি এর জন্য ক্ষতিকর । অনেকেই এই প্রাইভেসি কন্ট্রোল এর গুরুত্ব বুঝতে পারেন না। এই সেটিংস দ্বারা আপনার কোন বন্ধু কোন এ্যাপলিকেশন ইনষ্টল করলে সেখানে আপনার ব্যক্তিগত তথ্যের উপস্থিতি নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন।

৯. ফেসবুকের অ্যাপলিকেশনে নিজের প্রাইভেসি রাখুন:
কোনা অ্যাপলিকেশন আপনার কি কি তথ্য শেয়ার করছে তা জানার তেমন উপায় নেই । কোন আ্যপলিকেশন আপনার সম্পর্কে জানে এবং বন্ধুদের গোপনা তথ্য জাতে যখন ক্যুইজটি সিলেক্ট করবেন তখন প্রোগ্রামের ডেভেলপার তাও জানতে পারে যা প্রাইভেসী এর জন্য ক্ষতিকর।
এই ঝুকি থেকে বাঁচার জন্য আপনি যা করতে পারেন তা হলো সেইসব অ্যাপলিকেশন আপনি গ্রহন করতে পারেন যা বিশ্বাসযোগ্য এবং প্রাইভেসির প্রতি হুমকি নয় । টপ মেন্যু থেকে Settings > Application Settings যান। ড্রড ডাউন বক্স হতে Recently Used to Authorized এ পরিবর্তন করুন।

তাছাড়া অ্যাপলিকেশন এর লিষ্ট চেক করুন Allowed to Post এবং Granted Additional Permissions যাতে আপনি ইচ্ছামত অ্যাপ্লিকেশন রিমুভ করতে পারেন ।

১০. চিরস্স্থায়ী ভাবে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলেট করতে চান? তাহলে আপনার অ্যাকাউন্ট De-Activate নয় , একদম ডিলেট করুন:

আপনি সহজে আপনার ফেসবুক আ্যকাউন্ট De-Activate করতে পারেন Settings থেকে। কিন্তু De-Activate করলেও আপনার সব ছবি, তথ্য, প্রোফাইল, বন্ধু ফেসবুকে রয়ে যাবে। আপনি চিরস্থায়ী ভাবে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ডিলেট করতে চাইলে আপনাকে একটি deletion রিকোয়েষ্ট সাবমিট করে হবে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন