আগামী দুই বছর বিশ্ব হবে চরম উষ্ণ

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// বিশ্বের ইতিহাসে উষ্ণতম হতে যাচ্ছে আগামী দুই বছর। যুক্তরাজ্যের আবহাওয়া বিভাগের গবেষণায় উঠে এসেছে এ তথ্য। প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে এরই মধ্যে শক্তিশালী ‘এল নিনো’ তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

চলতি বছর গোটা বিশ্বের গড় তাপমাত্রা বেড়েছে রেকর্ড পরিমাণে। গত কয়েক মাসে ভারত-পাকিস্তান, মধ্যপ্রাচ্য সহ বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে দেখা গেছে ভয়াবহ দাবদাহ। গবেষকদের আশঙ্কা, তাপমাত্রা বৃদ্ধির এই হার শুধু অব্যাহতই থাকবে না, আগামী দুই বছর হবে বিশ্বের ইতিহাসে সবচেয়ে উষ্ণ সময়।

তারা বলছেন, প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে যে এল নিনো সৃষ্টি হয়েছে, তার প্রভাবে মধ্য আমেরিকায় বৃষ্টিপাতের হার আশঙ্কাজনকভাবে কমে গেছে, অনেক স্থানেই দেখা দিয়েছে খরা।

পানামা খালের পানি কমে যাওয়ায়, সেখানে নৌযান চলাচল কমিয়ে দেয়ার পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ।

পানামা খাল কর্তৃপক্ষের সহ-সভাপতি, কার্লোস ভার্গাস বলেন, “১০২ বছরের ইতিহাসে, এখন চার্জেস নদীতে পানির প্রবাহ সবচেয়ে কম। পানামা খাল সংলগ্ন এলাকায় মারাত্মক খরা দেখা দিয়েছে। সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনা করে পানি সংরক্ষণে ব্যবস্থা নিয়েছি আমরা।”

এল নিনোর প্রভাব জানতে, এ অঞ্চলের রেইন ফরেস্টে নানা ধরণের গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন পরিবেশ বিজ্ঞানীরা। প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে তারা অনেকটাই নিশ্চিত, সমুদ্রে তাপপ্রবাহের এই ধারা গোটা বিশ্বের জলবায়ুতেই বড় ধরণের পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে।

স্মিথসোনিয়ান ট্রপিকাল রিসার্চ ইনস্টিটিউটের গবেষক, স্টিভেন প্যাটন বললেন, “এ ধরণের সর্বশেষ বড় ঘটনা আমরা দেখেছি ১৯৯৭-৯৮ সালে। এ বছর কিন্তু তারও দুই মাস আগেই খরা শুরু হয়েছে। পরিস্থিতি যদি সেবারের মতোই হয়, সেক্ষেত্রে এ বছর তা আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে।”

পাশাপাশি, গ্রিন হাউস গ্যাস নির্গমন বৃদ্ধির কারণেও আগামী দিনগুলোতে তাপমাত্রা আরো বেশি বেড়ে যাবে বলেই আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন