নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// নাগরিক জীবনে কেনাকাটার ধরনে এখন এসেছে বেশ পরিবর্তন। এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমেও ঈদসহ নানা উৎসবে কেনাকেটা করেন অনেকে। শাড়ি, সালোয়ার, কামিজ, পাঞ্জাবি, জুয়েলারিসহ উৎসবে নানান পণ্য কেনা যায় ফেসুবকের মাধ্যমে। তাই ফেসবুকভিত্তিক বেশ কিছু অনলাইন শপ তৈরি হয়েছে।

রাজধানী ঢাকাসহ বড় শহরগুলোতে বহু ফেসবুক শপ তৈরি হয়েছে। ঘরে বসেই এই ব্যবসা করেন উদ্যোক্তারা। আবার ক্রেতারা নিজের ব্যস্ততা ও যানজটের ঝক্কি-ঝামেলার কারণে বিপণিবিতানে গিয়ে পণ্য কেনার সময় পান না। তাই অনেকে ফেসবুক শপের আশ্রয় নিচ্ছেন।

ফেসবুকে ঢুঁ মেরে খুঁজে পাওয়া কেনাকাটা বহু ফেসবুক পেজ।

নিন্মে ধারাবাহিক তুলে ধরা হলো পেজগুলো:

www.facebook.com/sajobangladesh

www.facebook.com/saifshopbd

www.facebook.com/wings.butterfly.BD.page

www.facebook.com/banglafashion.house

www.facebook.com/helloladyhellolady

ফেসবুকে কেনাকাটায় সর্তকতা:
ফেসবুকে কেনাকাটা করার পেজগুলো সম্পর্কে খুব ভালো করে খোঁজখবর নিন। আপনি যা কিনতে চান, যেসব পেজে তা বিক্রয় করা হয় সে ধরনের অনেকগুলো পেজ নিয়ে মোটামুটি একটি রিসার্চ করে ফেলুন। এতে আপনার পণ্যের মান, দাম এবং ধরন সম্পর্কে তো আইডিয়া হবেই, তার ওপর যে ফ্যাশন বা স্টাইল চলছে, সে ব্যাপারেও ভালো ধারণা পাবেন। কোথায় কোন পোশাকের রেপ্লিকা বিক্রয় হয়, কোথায় আসলটি পাওয়া যায়, কোথায় ডিজাইনার পোশাক পাওয়া যাবে এসব ব্যাপারে আপনার খুব ভালো আইডিয়া হয়ে যাবে যদি আপনি পেজগুলো নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করেন। ভালো-মন্দ পেজ বোঝার আরেকটি ভালো উপায় হল পেজগুলোর রিভিউ দেখার। যারা এর আগে ঐ পেজ থেকে কিনেছেন, তারা তাদের অভিজ্ঞতাটি লিখে রিভিউ দিয়ে থাকেন। রিভিউ দেখেও আপনি ধারণা নিতে পারবেন পেজটি বিশ্বাসযোগ্য কিনা।

যে পণ্যটি কিনছেন যেমন রেডিমেড পোশাক, জুতা, ব্যাগ এগুলোর সঠিক মাপ এবং ম্যাটেরিয়াল সুস্পষ্টভাবে জেনে নিন। ইনবক্স করে, কিংবা সবচেয়ে ভালো হয় সরাসরি ফোন করে এসব জেনে নিন। পেজ এ সাধারণত গাউন, ব্যাগ, জুতা ইত্যাদির মাপ দেয়া থাকে। কিনবেন কি কিনবেন না, সেটা নির্ধারিত হয়ে যাবে আপনি যখন এর মান নিয়ে নিশ্চিত হবেন। কিছু কিছু জিনিস আসলে সামনা সামনি দেখেই কেনা ভালো। যেমন- জুতা, ফাউন্ডেশন ইত্যাদি। কেননা এগুলো টেস্ট করে কিনতে হয়। অনেক সুন্দর একজোড়া জুতা আপনার পায়ে ভালো নাও লাগতে পারে অথবা জুতার মাপ ঠিকমতো হয়নি।

পেমেন্টের ক্ষেত্রে বিশ্বাসযোগ্যতাটা অনেক বড় ব্যাপার। ক্যাশ অন ডেলিভারি সবচেয়ে ভালো ব্যবস্থা, কিন্তু দূরে বসে কেনাকাটা করলে অগ্রিম পেমেন্ট করতেই হয়। অধিকাংশ পেজে কেনাকাটা করার আগে ফুল পেমেন্ট বা পেজভেদে নির্দিষ্ট পারসেন্ট পর্যন্ত অগ্রিম পেমেন্ট করে অর্ডার কনফার্ম করতে হয়। সেক্ষেত্রে নিরাপত্তার জন্য “অর্ডার কনফার্ম হলো”, এই কথাটি মোবাইল ফোনে মেসেজের মাধ্যমে বা ফেসবুকের ইনবক্স এ জানিয়ে দিতে বলবেন। তাহলে দুর্ভাগ্যবশত আপনি প্রতারনার শিকার হলেও ফোন বা ইনবক্সের মেসেজটি অন্তত প্রমাণ হিসেবে থাকবে।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন