নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// বাংলাদেশের অর্থনীততে ভূমিকা নিয়ে শেখ হাসিনা এবং বিটুবি/বিটুপি আন্ত:সীমান্ত লেনদেন সমাধানে নের্তৃত্বস্থানীয় সেবা প্রদানকারী সংস্থা ট্রান্সপে-এর সিইও সামিষ কুমার-এর মধ্যে নিউয়র্কের ওয়ালডর্ফ-অ্যাসেটোরিয়া হোটেলে সম্প্রতি একটি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

বিগত কয়েক বছর ডিজিটাল বাংলাদেশে একটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে মুক্ত পেশাজীবীরা (ফ্রিল্যান্সার)। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ অনলাইন মার্কেটপ্লেস গুলো তে একটি জনপ্রিয় ও নির্ভরযোগ্য নামে পরিচিত হয়েছে। অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশ থেকে আরো বিপুল সংখ্যক দক্ষ মুক্ত পেশাজীবী যোগ দেবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এই বিষয়গুলোই বারবার আলোচিত হয় যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক-এ বি.সি.আই.উইও ট্রান্সপে আয়োজিত একটি মধ্যান্ন ভোজের অনুষ্ঠানে।

প্রধানমন্ত্রী মেখ হাসিনা ও নিউইয়র্ক ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ট্রান্সপে-এর প্রধান নির্বাহী সামিষ কুমার বাংলাদেশের তরুণদের ভার্চুয়াল ইকোনমিতে অগ্রগতি নিয়ে মতবিনিময় করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের ডিজিটাল জোয়ারে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পেরে আমরা আনন্দিত ও গর্বিত। বাংলাদেশের অধিকাংশ ফ্রীল্যান্সারই ইতিমধ্যে ট্রান্সপে-এর সেবা ব্যবহার করছে এবং এর মাধ্যমে মার্কেটপ্লেসে উপার্জিত টাকা উত্তোলন করছে।

সামিষ কুমার আরও বলেন, বাংলাদেশী ফ্রিল্যান্সারদের কথা মাথায় রেখে ট্রান্স পে-এর সেবাকে আরো ব্যবহার উপযোগী ,দ্রুততর ও সাশ্রয়ী করার প্রয়াস চলছে।

ট্রান্সপে-এর মাধ্যমে সরাসরি ব্যাংক একাউন্ট এ টাকা পৌঁছে যায়। যে কোনো মুক্ত পেশাজীবী অথবা প্রতিষ্ঠান যাদের বাংলাদেশের বাইরে থেকে টাকা আসে তারা ট্রান্স পে এর ওয়েব সাইটে গিয়ে বিনামূল্যে নিবন্ধন করতে পারেন।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন