স্যোশাল মিডিয়ায় তাহসান-মিথিলাকে নিয়ে সমলোচনার ঝড়

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিবেদক, টেকজুমডটটিভি// অনেকটা সুখী দম্পতি বলা হতো তাহসান- মিথিলা দম্পতিকে। দু’জনেই প্রেম করে বিয়ে করেছেন। সংসার জীবনও পার করেছন প্রায় ১১ বছর। অনেকটা তাদের সুখী দম্পতির উদাহরণ হিসেবেও দেখা হতো । অবশেষে বিচ্ছেদ হচ্ছে তাদের। এ নিয়ে তাদের স্যোশাল মিডিয়ায় ব্যাপক সমালোচন ঝড় বইছে।

বৃহস্পতিবার ( ২০ জুলাই) সকাল থেকে তাহসানের ভেরিফাইড পেইজে স্ট্যাটাস দেওয়ার পর থেকে সবাই আসলে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিয়টি জানে। পরে এ বিষয়টি গণমাধ্যম কর্মীদের দুজনই নিশ্চিত করেছেন।

সিনিয়র সাংবাদিক ও জাগো নিউজের বিনোদন ইন চার্জ লিমন আহমেদ লিখেছেন, ‘তাহসান-মিথিলার ডিভোর্সের প্রেসারে আমার জ্বরও তিতা হয়ে গেছে! হায়রে মোমের সংসার…..’

এ বিষয়টির সমালোচনা করে অভিনেত্রী তানিন সুবহা লিখেন, ‘কারো সংসার ভাংগাটা খুশির খবর নয়। পারিবারিক অশান্তিজনক আচরন এর রেজাল্ট এটি। জানিনা কার ভুল। একটি সংসার ভাঙ্গার পেছনে একটি ছেলের যেমন ভূমিকা থাকে তেমন একটি মেয়ের ভূমিকা থাকে। কারন আমরা sacrifice করতে জানিনা , নিজেকে হ্যাপি রাখার জন্য অন্যায় করতেও দ্বিধাবোধ করিনা, কারণ আমরা স্বার্থপর পৃথীবির স্বার্থপর মানুষ।’

তাহসান-মিথিলার বিয়ের ছবি। স্যোশাল মিডিয়া থেকে নেওয়া।

এ দিকে দুই তারকার বিয়ে এক দশকেরও বেশি সময় আগে। ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট ঘর বাঁধেন তারা। ১১ বছরের সংসারে একমাত্র মেয়ের নাম আইরা তেহরীম খান।

কিন্তু হঠাৎ এ বিচ্ছেদের খবরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন উঠেছে, কেন এই পরিণতির তাদের দুজনের।

মুঠোফোন বার্তায় ভক্তদের উদ্দেশে তাহসান বলেন, তাহসান তার ফেসবুকে লেখেন, ‘দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, আমরা যৌথভাবে বিয়ে বিচ্ছেদের ঘোষণা দিতে যাচ্ছি।’

‘গত কয়েক মাস ধরে আমরা আমাদের মধ্যে মতপার্থক্য দূর করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়েছি। তবে আমরা সামাজিক চাপে এক সঙ্গে থাকার বদলে আমরা আলাদাই হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

‘আমরা জানি আমাদের এই সিদ্ধান্তে অনেকে ব্যথিত হবেন। সে জন্য আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি।’

এছাড়াও সম্প্রতি গণমাধ্যমে আলোড়ন উঠেছে শখ-নিলয়, হাবিব-রেহান, সালমা-শিবলি জুটির বিচ্ছেদের খবরেও।

টেকজুম/২০ জুলাই/এসআর