নারীদের তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণে ছুটবে স্মার্ট বাস

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// তথ্যপ্রযুক্তিতে নারীদের প্রশিক্ষণ দিতে আসছে স্মার্ট বাস। সাউন্ড প্রুফ ও এয়ারকন্ডিশন ব্যবস্থা সম্বলিত বিশেষ এই বাসগুলোতে প্রত্যেক প্রশিক্ষণার্থীর জন্য একটি ল্যাপটপ, বড় এলইডি স্ক্রিন, সাউন্ড সিস্টেম, ওয়াইফাই ইন্টারনেট, নির্দিষ্ট প্রশিক্ষণ সামগ্রী, প্রশিক্ষণ সফটওয়্যার ও সার্বক্ষণিক জেনারেটরের ব্যবস্থা থাকছে।

সরকারে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, মোবাইল ফোন অপারেটর রবি ও বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা কোম্পানি হুয়াওয়ে টেকনোলজিস বাংলাদেশ লিমিটেড যৌথভাবে এই বাস আনছে।

দেশে এমন স্মার্টবাস চালুর প্রথম চিন্তা করেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। স্পেনে ‘ স্মার্ট বাস : অন-বোর্ড উইথ দ্যা ফিউচার জেনারেশন’ নামে হুয়াওয়ের শিক্ষমূলক প্রকল্প দেখে বাংলাদেশেও এটি চালু করতে চান পলক। তখন স্পেন থেকে দেশে ফিরে তিনি হুয়াওয়ের বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষকে এটি চালুর কথা বলেন।

এরপর হুয়াওয়ে এবং রবি পৃথকভাবে তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণ ও সচেতনতায় এমন বাস নামানোর সাথে যুক্ত হয়। সবশেষে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ হুয়াওয়ে ও রবিকে সঙ্গে নিয়ে ব্যাপক পরিসরে দেশে এই স্মার্ট বাস প্রকল্পের উদ্যোগ নেয়।

রোববার জুনাইদ আহমেদ পলকের উপস্থিতিতে এই প্রকল্পের সমঝোতা চুক্তিতে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন রবির চিফ অপারেটিং অফিসার মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, হুয়াওয়ে টেকনোলজিস বাংলাদেশ লিমিটেডের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ঝাও হাউফু ও আইসিটি বিভাগের যুগ্ম-সচিব মো. মঞ্জুর কাদির।

প্রকল্পের আওতায় ছয়টি বাসের মাধ্যমে দেশের ৬৪টি জেলার ২ লাখ ৪০ হাজার তরুণী ও মেধাবী নারীদের তথ্যপ্রযুক্তির মৌলিক প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

প্রতিটি বাসে একসাথে ২৫ জনের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে। পরিকল্পিতভাবে বাসগুলো নির্দিষ্ট রুটে চলাচল করবে এবং বছরে ৪০ সপ্তাহ কার্যক্রম চালাবে।

স্থানীয় প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যা ও চাহিদার ওপর ভিত্তি করে প্রতিটি স্থানে এক বা দুই দিনের জন্য প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। প্রশিক্ষণ শেষে ওই এলাকার তরুণ শিক্ষার্থীদের মাঝে তথ্যপ্রযুক্তি সচেতনতা বৃদ্ধিতে বাসগুলো নিয়ে রোড শো হবে।

প্রকল্পটি নিয়ে জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ভিশন-২০২১ সামনে রেখে নেয়া এই পদক্ষেপ ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার পথযাত্রায় প্রান্তিক তরুণীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে মেধাবী নারীদের একটি শক্তিশালী নেটওয়ার্ক গড়ে উঠবে যারা তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে এগিয়ে যাবেন এবং এই নারীরা তাদের সমাজে প্রেরণার উৎস হয়ে থাকবেন ।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ জানায়, তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য প্রকল্পটি নারীদের, বিশেষ করে প্রান্তিক এলাকায় নারীদের কাছে ব্যাপক সাড়া ফেলবে।

ছয়টি বাসের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, রবি ও হুয়াওয়ে প্রত্যেকের দুটি করে বাস থাকবে। তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের তত্ত্বাবধানে বাস দুটির রক্ষণাবেক্ষণে থাকবে রবি ও হুয়াওয়ে।

শিগগিরই প্রকল্পটি চালু হবে জানিয়ে প্রকল্প উদ্যোক্তারা বলেন, ২০১৬ সালের মধ্যে কাজ শুরু করতে কয়েকটি বাস প্রস্তুত করা হবে। প্রাথমিকভাবে প্রকল্পটির মেয়াদ হবে তিন বছর।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন