সন্ত্রাসীদের নিরাপদ যোগাযোগমাধ্যম সনির প্লেস্টেশন ৪!

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// প্যারিসের জঙ্গি হামলার সঙ্গে চিন্তার বিষয় হয়ে উঠছে সনির প্লেস্টেশন ৪। বিশেষজ্ঞদের মতে, বহু জনপ্রিয় এই ভিডিওগেম প্লাটফর্মটি সন্ত্রাসীদের যোগাযোগ স্থাপনের অন্যতম মাধ্যম হয়ে উঠেছে।

শুক্রবারে হামলার তিন দিন আগেই বেলজিয়ামের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জান জাম্বোন এক কনফারেন্সে সাবধান বাণী দেন, সনি প্লেস্টেশন ৪ গেম কনসোলকে সন্ত্রাসীরা যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করছে। এতে তাদের যোগাযোগ হচ্ছে আরো বেশি নিরাপদ এবং তাদের খুঁজে পাওয়াটাও দুষ্কর।

জাম্বোন আরো জানান, প্লেস্টেশন ৪-এর মাধ্যমে সন্ত্রাসীদের আন্তঃযোগাযোগ সবচেয়ে নিরাপদ হয়ে উঠেছে। গোয়েন্দাদের পক্ষে এমন যোগাযোগ শনাক্ত করা খুব কঠিন। এটা শুধু বেলজিয়ামের জন্যেই নয়, আন্তর্জাতিক পরিসরে যেকোনো সিক্রেট সার্ভিসের জন্যে কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। অন্য অর্থে বলা যায়, প্লেস্টেশন ৪ সরকারি সিক্রেট সার্ভিসের জন্যে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আইবস সাইবারসিকিউরিটির সিইও ও বিশেষজ্ঞ পল মার্টিনি জোর কণ্ঠে বলেন, আন্তর্জাতিক সন্ত্রাস দলগুলো যোগাযোগের ক্ষেত্রে যে প্লেস্টেশন ৪ ব্যবহার করছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। বিভিন্ন ব্রাইজার এবং অ্যাপের মাধ্যমে ইন্টারনেটে যে পদ্ধতিতে যোগাযোগ করা হয়, প্লেস্টেশন সম্পূর্ণ ভিন্ন পদ্ধতিতে কাজটি করে থাকে। এ যন্ত্রের মাধ্যমে একইসঙ্গে একাধিক গেমার যোগাযোগ করতে পারেন। উচ্চগতির এ ব্যবস্থায় সবাই সবার সঙ্গে সহজে যোগাযোগ করতে পারেন। আবার প্লেস্টেশনের নেটওয়ার্কে যেভাবে টেক্সট এবং ভয়েস এনক্রিপ্ট হয়, তার দ্বারা গেমিংয়ের মাধ্যমেও সন্ত্রাসীরা যোগাযোগ স্থাপন করতে পারে।

এনক্রিপশন-অ্যাজ-আ-সার্ভিস কম্পানি অ্যালার্টসেক-এর প্রেসিডেন্ট ইবা ব্লিৎজ জানান, আইএস প্লেস্টেশন ৪-এর মাধ্যমে আন্তঃযোগাযোগের কাজটি সারতে পারে। যার কারণে তাদের এই বিশাল আয়োজন সম্পর্কে কোনো আভাসই পাওয়া যায়নি। আবার ভিডিও গেমসের মাধ্যমে বিশেষ উপায়ে মেসেজ আদান-প্রদান করা হলেও তা চিহ্নিত করা প্রায় অবসম্ভব বিষয়। এনডোপয়েন্ট টেকনলজিসের বিশ্লেষক রজার কে জানান, গেমিং কনসোলের মাধ্যমে বিকল্প উপায়ে যোগাযোগের উপায় থেকেই যায়। আর এ বিষয়টি খুব দরকার সন্ত্রাসীদের কাছে। এ ক্ষেত্রে টেক্সট ছাড়াও ছবির মাধ্যমে মেসেজ আদান-প্রদান সম্ভব। সূত্র : ফক্স নিউজ

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন