সার্জন রোবট: শরীরের ভেতর ডাক্তারি করবে যে

0

জাহাঙ্গীর সুর, এমআইটি নিউজ অবলম্বনে// পেটের ভেতর যে কোনো ধরনের ক্ষত কিংবা অন্ননালিতে আটকে থাকা কোনো বস্তু সরাতে ভবিষ্যতে আর অস্ত্রোপচারের দরকার পড়বে না। কেননা গবেষকরা এমন এক বুদ্ধিমান রোবট তৈরি করেছেন- যা আগামীতে মানুষের পেটের ভেতর কাটাছেঁড়া মেরামত কিংবা খাদ্যনালিতে থাকা বাড়তি বস্তু সরিয়ে দিতে ডাক্তারের ভূমিকায় নেমে পড়বে। এটিকে বলা হচ্ছে ‘অরিগ্যামি রোবট’।

কেন এমন নাম
জাপানের জনপ্রিয় কাগুজে নকশা ‘অরিগ্যামি’র নামে রোবটটির নাম অরিগ্যামি রোবট। এ নকশায় নৌকা, বাঘÑ সবকিছুই তৈরি হয় কাগজ দিয়ে। ভাঁজ খুললেই দেখা যায়, সেসব কাগজ ছাড়া আর কিছু নয়। তেমনি ওই ডাক্তার রোবটও নিজেই নিজের ভাঁজ খুলতে পারে। এটি এত ছোট যে, ক্যাপসুলের ভেতর পুরে দেওয়া যায় সহজে। এরপর গিলে ফেললেই পেটে চালান।

কী কাজ করবে
অরিগ্যামি রোবট হবে আগামীর স্বাস্থ্যসেবায় নতুন এক মাত্রা। এমনটিই বলছেন উদ্ভাবক দলের গবেষকরা। তারা বলছেন, ক্ষত সারানো কিংবা অন্য কিছু সরানোÑ সব কাজ তার ওপর ছেড়ে দিতে পারেন। বাইরে থেকে কোনো ছুরি-কাঁচি চালানো লাগবে না।

কী করতে হবে
প্রথমেই রোবটটি ভাঁজ খুলে নিজেকে ক্যাপসুলের ভেতর থেকে মুক্ত করে ফেলবে। এরপর বাইরে থেকে চৌম্বকবল ব্যবহার করে তাকে বিভিন্ন দিকে সরানো যায়। পেটের ভেতর ঠিক যে জায়গায় ‘রোবটিক অপারেশন’ লাগবে, সেখানে তাকে নিয়ে যেতে হবে চৌম্বকক্ষেত্র ব্যবহার করেই।

কারিগর কারা
অরিগ্যামি রোবট বানিয়েছেন কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের গবেষকদের কয়েকটি দল। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি), যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি শেফিল্ড ও জাপানের টোকিও ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিস প্রভৃতি। এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন এমআইটির প্রকৌশলী ডেনিয়েল রাস। তিনি ওই শিক্ষালয়ের তড়িৎ প্রকৌশল ও কম্পিউটার বিজ্ঞানের অধ্যাপক।

উদ্ভাবকের চোখে রোবটিক ডাক্তার
অরিগ্যামি রোবট সম্পর্কে গবেষণা দলের প্রধান রাস বলেছেন, এটি সত্যিই খুব রোমাঞ্চকর বিষয়। আমাদের অরিগ্যামি রোবটটা ছোট্ট। কিন্তু এটি ভূমিকা রাখবে স্বাস্থ্যসেবায় খুব গুরুত্বপূর্ণ কাজে।

এমআইটির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা গবেষণাগারেরও প্রধান পদে রয়েছেন ডেনিয়েল রাস। তিনি বলেন, শরীরের ভেতর চিকিৎসার জন্য আমাদের দরকার ছিল একটা ছোট, নিয়ন্ত্রণযোগ্য ও শিকলমুক্ত রোবটব্যবস্থা। কেননা শরীরের ভেতর আংটাযুক্ত কোনো রোবটকে নিয়ন্ত্রণ করা ও দিকনির্দেশনা দেওয়া বেশ কষ্টসাধ্য। তিনি মনে করেন, তাদের নবউদ্ভাবিত অরিগ্যামি রোবটটি কষ্টের ওই কাজটি এখন সহজ করে দেবে। পরীক্ষামূলক পর্যবেক্ষণে যে পারদর্শিতা দেখিয়েছে রোবটিক এই ডাক্তার, এতে রাস ও তার সতীর্থ গবেষকরা আশাবাদী।

এটিই কি প্রথম
এক কথায় বলতে গেলে ‘না’। সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে এবার যে আন্তর্জাতিক রোবটিক ও অটোমেশন সম্মেলন হচ্ছে, সেখানে অরিগ্যামি রোবটটি উপস্থাপন করছেন উদ্ভাবকরা। একই সম্মেলনে এ রকমই একটি রোবটের কথা শোনা গিয়েছিল গত বছর। তবে এবারের রোবটটির নকশায় রয়েছে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন।

মূল্যায়ন
‘এই আইডিয়াটি অসম্ভব সৃজনশীল ও অত্যন্ত বাস্তবিক’- রাসদের অরিগ্যামি রোবটটি সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেছেন সুইস কম্পিউটারবিজ্ঞানী ব্রাডলি নেলসন। তিনি এই গবেষণক দলের সঙ্গে সম্পৃক্ত নন। জুরিখে সুইস ফেডারেল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির রোবটিকসের অধ্যাপক বলেছেন, আমি এ জীবনে যত অরিগ্যামি রোবট দেখেছি, এগুলোর মধ্যে ওই রোবটটির প্রয়োগ হবে সবচেয়ে প্রত্যয়যোগ্য।

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন