মার্কিন উদ্যোক্তাদের মধ্যে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে 'ক্রাউডফান্ডিং'

0

নিউজ ডেস্ক, টেকজুম ডটটিভি// ইন্টারনেটের মাধ্যমে আগ্রহীদের কাছ থেকে সংগ্রহ করা অর্থ দিয়ে ব্যবসা করছেন অনেক মার্কিন নাগরিক। ক্রাউডফান্ডিং নামে পরিচিত এ উদ্যোগ এরইমধ্যে এতো জনপ্রিয়তা পেয়েছে যে, শুধু এ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ইন্টারনেটে যাত্রা শুরু করেছে নানা ধরনের ওয়েবসাইট। গতানুগতিক ব্যবস্থা থেকে ভিন্ন এ উদ্যোগের মধ্য দিয়ে দল বেঁধে সফলতার সাথে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন সামান্য পুঁজি নিয়ে যাত্রা শুরু করা মার্কিন উদ্যোক্তারা।

বাইকের প্রতি আগ্রহী হওয়ায় বাইকের শো’রুম দিয়েই প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বপ্ন ডেভ ওয়েনারের। শুধু প্রয়োজন ছিলো অর্থের। আর তাই ক্রাউডফান্ডিংয়ের মধ্য দিয়েই প্রতিষ্ঠিত করলেন ‘প্রায়োরিটি বাই সাইকেলস’। ক্রাউডফান্ডিংয়ের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত এ শো-রুমটিতে এখন বাইক তৈরি এবং বিক্রির কাজ করছেন অনেকে।

ইন্টারনেটের মধ্য দিয়ে আগ্রহী উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করে দল বেঁধে এখন খাবার থেকে শুরু করে টেক পণ্যের ব্যবসা করছেন তার মতো অনেকেই। এক্ষেত্রে পারস্পরিক বিশ্বাসটাই জরুরি। জনপ্রিয়তা আর সফলতার কারণে উদ্যোক্তাদের সহযোগিতায় এরইমধ্যে গড়ে উঠেছে কিকস্টার, ইন্ডিগোগো, গোফান্ডমি’র মতো ওয়েবসাইট। যারা আগ্রহী উদ্যোক্তা খুঁজে বের করে তাদের মধ্যে যোগাযোগ তৈরির কাজ করছে।

প্রায়োরিটি বাই সাইকেলসের স্বত্বাধিকারী ডেভ ওয়েনার বলেন, ‘এটা খুব ভালো উদ্যোগ। কারণ কোন উদ্যোক্তার পক্ষেই শুরুর দিকে মোটা অঙ্কের বিনিয়োগ সম্ভব নয়। দল বেঁধে ব্যবসা শুরু করাতেই আমরা সফল হতে পেরেছি। এ উদ্যোগে কিকস্টার আমাদের খুব সহায়তা করেছে।’

কিকস্টারের মুখপাত্র জুলিয়া উড বলেন, ‘প্রথমে আপনি লক্ষ্য স্থির করুন, এরপর সময় ঠিক করে নিন। যদি আপনার মনে হয়, ৩০ দিনের মধ্যে আগ্রহী উদ্যোক্তা এবং বিনিয়োগকারীদের পেয়ে যাবেন, তাহলে সেটা সম্ভব। কিন্তু প্রথমে আপনাকে লক্ষ্য স্থির করতেই হবে।’

বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৪ সালে ক্রাউডফান্ডিং ব্যবসায় বিনিয়োগের পরিমাণ ছিলো ১ হাজার ৬’শ ২০ কোটি ডলার। আগামী ৫ বছরে তা ৩০ হাজার কোটি ডলারে পৌঁছাবে বলে পূর্বাভাস বিশ্লেষকদের।

বাজার বিশ্লেষক অনিন্দ ঘোষ বলেন, ‘ক্রাউডফান্ডিং এতোটাই জনপ্রিয় আর সফল হবে যে, ভবিষ্যতে বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপরও এর নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। ক্রাউডফান্ডিংয়ের উদ্যোক্তারা একসময় এতো ক্ষমতাসীন হবে যে, পুঁজিবাজারসহ শীর্ষ বিনিয়োগকারীদেরও ছাড়িয়ে যাবে।’

ক্রাউডফান্ডিংয়ের মধ্য দিয়ে উদ্যোক্তারা কাজ করছেন জায়ান্ট কিছু প্রকল্পের জন্য। ব্যবসার সম্প্রসারণে এমন বিনিয়োগে ঝুঁকছে কোকাকোলা, নাইকি এবং ক্রিসলারের মতো ব্র্যান্ডও।

সূত্র: সময়নিউজ

মন্তব্য করতে লগইন করুন অথবা নিবন্ধন করুন